‘সব চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত বাংলাদেশ’

দেশের মাটিতে ভারতীয় স্পিনারদের রেকর্ড অসাধারণ। তবে সবশেষ সিরিজে কার্যকারিতার দিক থেকে যেন তাদের ছাড়িয়ে গেছেন পেসাররা। উইকেট বলছে বাংলাদেশের সামনে অপেক্ষা করছে উমেশ যাদব-মোহাম্মদ শামিদের আগুনে গোলা। মুমিনুল হক জানালেন, পেসারদের সঙ্গে রবিচন্দ্রন অশ্বিন-রবীন্দ্র জাদেজাদের স্পিনের জন্যও প্রস্তুত তার দল।

ক্রীড়া প্রতিবেদকইন্দোর থেকে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Nov 2019, 01:01 PM
Updated : 13 Nov 2019, 03:08 PM

সবশেষ দক্ষিণ আফ্রিকাকে তিন ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করে বিরাট কোহলির দল। তিন ম্যাচে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান করেন ডাবল সেঞ্চুরি। প্রথমটিতে ২০৩ রানে জেতার পর বাকি দুটিতে স্বাগতিকরা জেতে ইনিংস ব্যবধানে।

সিরিজে ৩২ উইকেট নেন ভারতীয় স্পিনাররা, ২৬ উইকেট নেন তিন পেসার শামি, উমেশ ও ইশান্ত শর্মা। ভারত এতো ভারসাম্যপূর্ণ দল আর এতো শক্তিশালী যে একেক দলের জন্য একেক রকম চ্যালেঞ্জ হাজির করতে পারে। বাংলাদেশের সামনে চ্যালেঞ্জ কি হবে, জানা নেই মুমিনুলের। তবে তারা সব কিছুর জন্যই প্রস্তুতি নিয়েছেন।

“ভারত এমন একটা দল যারা একেক দলকে একেক চ্যালেঞ্জ দিয়ে থাকে। আমাদের স্পিন দিয়ে চ্যালেঞ্জ দিতে পারে কিংবা পেস দিয়ে চ্যালেঞ্জ দিতে পারে। আমরা দুই দিক দিয়ে সেই চ্যালেঞ্জ নেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছি। অবশ্যই চ্যালেঞ্জ হবে। সেটা নেওয়ার মনমানসিকতা সবারই আছে।”

ভারতে এসে কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেনি বাংলাদেশ। তবে এর জন্য প্রস্তুতিতে কোনো ঘাটতি দেখেন না অধিনায়ক।

“আমার মনে হয় না, প্রস্তুতিতে কোনো ঘাটতি আছে। টেস্ট দলের আট খেলোয়াড় দেশে চার দিনের ম্যাচ খেলে এসেছে। আমি পাঁচ থেকে ছয় মাসের মধ্যে আট থেকে ১০টা চার দিনের ম্যাচ খেলেছি। অনেকে ‘এ’ দলে খেলেছে, মুশফিক ভাই, (মাহমুদউল্লাহ) রিয়াদ ভাই সবাই প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছে। আমার মনে হয় না, কোনো সমস্যা হবে। সবাই খেলার মধ্যেই ছিল। আশা করি, সবাই ভালোভাবে মানিয়ে নিতে পারবে।”

ভারতের তো অস্ত্রের অভাব নেই। এতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে হারানোর কিছু নেই বাংলাদেশের। মুমিনুলের কাছে এই সিরিজ অনেক পাওয়ার সুযোগ।

“যদি ইতিবাচক কোনো কিছুর কথা বলেন, আমার কাছে একটাই আছে, সেটা হলো সুযোগ। আমার কাছে পুরোটাই সুযোগ। যখন আপনি বিশ্বের সেরা দলের বিপক্ষে খেলবেন, যারা তিনটা বিভাগে খুবই ভালো তাদের বিপক্ষে ভালো কিছু করতে পারলে সেটা আপনার জন্য খুব ভালো ব্যাপার হবে।”

টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে রয়েছে ভারতের চার জন। বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে ২৫-এ আছে দেশটির ছয়জন। স্বাগতিকদের শক্তিমত্তায় ঘাবড়ে যাচ্ছেন না মুমিনুল। 

“বিষয়টা হলো পুরোপুরি মানসিক। ব্যাপারটা হলো যে, যখন কোনো দলের বিপক্ষে খেলবেন, আনুষাঙ্গিক সব কিছু আপনার লক্ষ্য রাখতে হবে। কোন দিকে কে কতটা শক্তিশালী, কার ব্যাটিং কেমন, বোলিং কেমন সবই লক্ষ্য করতে হবে। আপনার মাইন্ড সেট কেমন হবে এটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, আমার কাছে ব্যাপারটা এমন মনে হয়।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক