পালিয়ে যাওয়া জঙ্গিরা ‘নজরদারির মধ্যে’: ডিবির হারুন

ঢাকা মহানগর পুলিশের এই অতিরিক্ত কমিশনার বলছেন, “যে কোনো মুহূর্তে তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।”

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Nov 2022, 09:53 AM
Updated : 21 Nov 2022, 09:53 AM

আদালত পাড়া থেকে পালিয়ে যাওয়া মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জঙ্গিরা পুলিশের ‘নজরদারির মধ্যে রয়েছে’ বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (গোয়েন্দা) হারুন অর রশিদ।

মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মলনে তিনি এ দাবি করে বলেন, “যে কোনো মুহূর্তে তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।”

ঢাকা মহানগর মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এই সংবাদ সম্মলনে হারুন বলেন, “ঘটনার থেকে পুলিশের তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। আমরা সব জায়গায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে সকল প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি।"

রোববার ভরদুপুরে পুরান ঢাকার জনাকীর্ণ আদালত থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) নেতা মইনুল হাসান শামীম ওরফে সামির ওরফে ইমরান এবং আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাবকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় তাদের সহযোগীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী আইনজীবীর ভাষ্য অনুযায়ী, সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল শুনানি শেষে হাজতখানায় নেওয়ার সময় পুলিশের দিকে ‘স্প্রে মেরে’ তাদেরকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়।

শামীম ও সিদ্দিক দুজনই জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় মৃতুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। লেখক অভিজিৎ রায় হত্যা মামলাতেও আবু সিদ্দিক সোহেলের ফাঁসির রায় হয়েছে।

এ ঘটনায় ঢাকার পুলিশ কমিশনার পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। পলাতক দুই জঙ্গিকে ধরিয়ে দিলে ১০ লাখ করে ২০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছে পুলিশ। সারাদেশে জারি করা হয়েছে ‘রেড অ্যালার্ট’।

দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় একটি মামলাও করেছে পুলিশ; ওই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ জনকে রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত।

ওই মামলার পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে জানিয়ে হারুন অর রশিদ বলেন, “সব কিছু মিলিয়ে তদন্ত চলছে, আমরা মনে করি আসামিরা আমাদের নজরদারির মধ্যে রয়েছে।”

এদিকে আসামি ছিনতাইয়ের ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সেই প্রসঙ্গ ধরে হারুন বলেন, “আসামিদের আনা নেওয়ার ব্যাপারে আমাদের নিরাপত্তার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা থাকে। তবে যে কারণেই হোক একটি ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে, এ জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।”

আদালতের পাশাপাশি ‘সর্বত্রই’ বিশেষ টহল ও বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, “আসামিদের আনা নেওয়ার ক্ষেত্রে আরো সতর্ক থাকার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, পাশাপাশি আদালত পাড়ায় বাড়তি পুলিশের ব্যবস্থা পুলিশ কমিশনার করেছেন।”

আরও পড়ুন

Also Read: জঙ্গি ছিনতাই: কোথাও গাফিলতি ছিল, বলছেন মন্ত্রী

Also Read: দুই জঙ্গি ছিনতাই: পাঁচ পুলিশ বরখাস্ত

Also Read: জঙ্গি ছিনতাই: পুলিশের দুর্বলতা না অবহেলা?

Also Read: দুই জঙ্গি পালানোর পর ‘রেড অ্যালার্ট’, পুরস্কার ঘোষণা

Also Read: যেভাবে ছিনতাই ২ জঙ্গি

Also Read: আদালত প্রাঙ্গণে ‘পুলিশকে স্প্রে মেরে’ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিনতাই

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক