রুমায় অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দীনকে উদ্ধার

মঙ্গলবার রাতে তারাবি নামাজ পড়ার সময় মসজিদ থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় নেজাম উদ্দীনকে।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 April 2024, 02:00 PM
Updated : 4 April 2024, 02:00 PM

বান্দরবানের রুমায় সোনালী ব্যাংকে ডাকাতির সময় অপহৃত ব্যবস্থাপক নেজাম উদ্দীনকে উদ্ধার করার কথা জানিয়েছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় র‌্যাবের পাঠানো এক ক্ষুদে বার্তায় বলা হয়, “র‌্যাবের মধ্যস্থতায় সোনালী ব্যাংকের বান্দরবানের রুমা শাখার ম্যানেজার নেজাম উদ্দীন উদ্ধার করা হয়েছে।”

তাকে কখন, কোথা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে জানতে চাইলে র‌্যাব-১৫ অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল এইচ এম সাজ্জাদ হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে রুমা বাজারের কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। আমরা সমঝোতার ভিত্তিতে তাকে উদ্ধার করি।”

তবে সমঝোতার বিষয়টি স্পষ্ট করেননি এ র‌্যাব কর্মকর্তা। অপহরণকারীদের মুক্তিপণ দিতে হয়েছে কি না জানতে চাইলে সাজ্জাদ হোসেন বলেন, “এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।”

রুমার ভারপ্রাপ্ত ইউএনও দিদারুল আলম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “নেজাম উদ্দীন ভালো আছেন, সুস্থ্ আছেন। এখন বলার মত এটুকুই।”

মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে শতাধিক সশস্ত্র ব্যক্তি রুমা উপজেলা সদরে সোনালী ব্যাংকের শাখায় হামলা চালায়। তারা ব্যাংকের কর্মকর্তা, নিরাপত্তা রক্ষীসহ অন্তত ২০ জনকে মারধর করে। টাকার পাশাপাশি পুলিশের অস্ত্রও লুট করে।

নেজাম উদ্দীন তখন রামু উপজেলা কম্পাউন্ডের মসজিদে তারাবির নামাজ পড়ছিলেন। হামলাকারীরা মসজিদে ঢুকে তাকে নিয়ে চলে যায়।

ব্যাংকটি ক্যাশিয়ার উথোয়াইচিং মারমা ঘটনার বর্ণনায় সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ঘটনার সময় তিনি দোকানে চা খাচ্ছিলেন। হঠাৎ তিনজন সশস্ত্র ব্যক্তি তাকে ঘিরে ফেলে এবং অস্ত্রের মুখে তার পকেট থেকে ভল্টের চাবি কেড়ে নেয়।

শতাধিক ব্যক্তি তখন ব্যাংক ঘিরে রেখেছিল, ভেতরে সবকিছু তছনছ করে তারা।

“ভল্ট খুলতে গেলে দুইজনের চাবি লাগবে- ক্যাশিয়ার এবং ম্যানেজারের। আমার মনে হয়, আমার কাছে থাকা চাবি তারা ভল্ট খোলার চেষ্টা করেছে। ম্যানেজার থেকে চাবি না পেয়ে তাকে হয়ত তুলে নিয়ে গেছে।”

এরপর বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একদল সশস্ত্র লোক তিনটি গাড়ি নিয়ে এসে থানচি কৃষি ব্যাংক ও সোনালী ব্যাংক শাখায় হামলা চালিয়ে টাকা লুট করে।

কৃষি ব্যাংক থেকে দুই লাখ ৮ হাজার টাকা এবং সোনালী ব্যাংক থেকে ১৫ লাখ টাকা লুট করে নেয় তারা। ফিরে যাওয়ার সময় তারা গুলি চালিয়ে আতঙ্ক তৈরি করে।

দুটি ঘটনাতেই পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট-কেএনএফ এর নাম এসেছে; যারা পাহাড়ে ‘বম পার্টি’ নামে পরিচিত।

পুরনো খবর

দুই দিনে ৩ ব্যাংকে ডাকাতি: পাহাড়ে ফের ‘বম পার্টি’ আতঙ্ক

এবার ভরদুপুরে থানচির দুই ব্যাংকে ডাকাতি

ব্যাংক ম্যানেজার নেজামকে তারাবির নামাজ থেকে তুলে নিয়ে যায় সশস্ত্ররা

রুমায় ব্যাংক লুট: সন্ধান মেলেনি ‘অপহৃত’ ব্যবস্থাপকের

রুমায় ব্যাংক ডাকাতি, সন্দেহে ‘বম পার্টি’

রুমায় ব্যাংকে হামলা, টাকা লুট, ম্যানেজারকে ‘অপহরণ’