জাবিতে ধর্ষণ: জড়িতদের শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন শাহাজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে

“জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যে ঘটনা ঘটেছে তাতে বোঝা যাচ্ছে ক্যাম্পাসে শুধু বাহিরের মানুষ নয়, শিক্ষার্থীরাও নিরাপদ নয়।”

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Feb 2024, 05:51 PM
Updated : 8 Feb 2024, 05:51 PM

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বামীকে আবাসিক হলে আটকে রেখে স্ত্রীকে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি দাবিতে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে এ মানববন্ধন করেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক জায়েদা শারমিন ও বাংলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ফারজানা সিদ্দিকা এতে বক্তব্য দেন।

এছাড়া পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের মেহরাব সাদাত, বাংলা বিভাগের মাধুর্য চাকমা ও জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের ফাহিম সিজান বক্তব্য দেন। 

জায়েদা শারমিন বলেন, “জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে যে ঘটনা ঘটেছে তাতে বোঝা যাচ্ছে ক্যাম্পাসে শুধু বাহিরের মানুষ নয়, শিক্ষার্থীরাও নিরাপদ নয়। প্রত্যেকটি ক্যাম্পাস যৌন হয়রানিমুক্ত হওয়া উচিত এবং যারা সচেতন তাদের এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা উচিত।

“সারাদেশের স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় এমনকি মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন জায়গায় যৌন হয়রানি হচ্ছে। শিশু থেকে বৃদ্ধ কেউ রেহাই পাচ্ছে না। এ ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা প্রয়োজন।”

ফারজানা সিদ্দিকা বলেন, “২৬ বছর আগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ধর্ষকদের বিরুদ্ধে যে যৌন নিপীড়ন বিরোধী আন্দোলন সূচিত হয়েছিল সেটিতে আমি সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছিলাম। সেদিন তীব্র আন্দোলনের মুখে প্রশাসন বাধ্য হয়েছিল ধর্ষকদের বিচার করতে।

“তারই ফল হিসেবে হাই কোর্টের নির্দেশে সারাদেশে প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে নিপীড়ন বিরোধী সেল চালু করা হয়। আবার এ ঘটনার পুনরাবৃত্তিতে বোঝা যায় দেশ কতটুকু এগোচ্ছে নাকি আরও অন্ধকারের দিকে যাচ্ছে। এ ধরনের ঘটনা বিভিন্ন জায়গায় ঘটছে।”

এ ঘটনার বিরুদ্ধে সবসময় আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া আমাদের দায়িত্ব বলে জানান এ শিক্ষক।

শনিবার রাতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মশাররফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে এক গৃহবধূকে পাশের জঙ্গলে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্বামী ছয়জনের বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় মামলা করলে পুলিশ প্রধান আসামিসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করে। প্রধান আসামি মোস্তাফিজুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ৪৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক।

আরও পড়ুন:

জাবিতে ধর্ষণ: রিমান্ড শেষে কারাগারে ৪ আসামি

 জাবিতে ধর্ষণ: তৃতীয় দিনেও উত্তাল ক্যাম্পাস

জাবিতে যথপোযুক্ত শাস্তি না হওয়ায় ধর্ষণ থামছে না: রামেন্দু মজুমদার

জাহাঙ্গীরনগরে ‘ধর্ষণ’: বাকি দুই আসামিও গ্রেপ্তার

জাহাঙ্গীরনগরে ধর্ষণ: ঘটনার যে বিবরণ দিল র‌্যাব

জাবি প্রশাসনের ব্যর্থতায় যৌন নিপীড়ন বন্ধ হয়নি: ইউজিসি

জাবিতে ধর্ষণ: দিনভর বিক্ষোভে নামল আরও অনেকেই