ফেরি ডুবি: ‘সবাইকে ট্রলারে তুলে দিয়ে’ নিখোঁজ হলেন হুমায়ুন

অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঘাটে ফিরলেও ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ আছেন পিরোজপুরের হুমায়ুন।

মাহিদুল ইসলাম মাহিমানিকগঞ্জ প্রতিনিধি.বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Jan 2024, 05:08 PM
Updated : 17 Jan 2024, 05:08 PM

মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটের অদূরে ফেরি রজনীগন্ধ্যা ডুবিতে নিখোঁজ সহকারী মাস্টার হুমায়ুন কবির এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। তিনি বিআইডব্লিউটিসি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের আরিচা আঞ্চলিক কমিটির দক্ষিণ (পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া) শাখার সভাপতি ছিলেন।

বুধবার সকাল ৮টার দিকে পাটুরিয়া ঘাটের কাছাকাছি ফেরিটি ডুবে যায়। অন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পাড়ে ফিরলেও ঘটনার পর থেকেই নিখোঁজ আছেন হুমায়ুন।

হুমায়ুনের গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরে। তার স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছেন। তিনি ২০১১ সালে বিআইডব্লিউটিসি-তে চাকরি শুরু করেন। সাত মাস আগে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ফেরি পথে যোগদান করেন।

হুমায়ুন কবিরের ব্যাপারে জানতে চাইলে বিআইডব্লিউটিসির আরিচা ঘাটের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রুবেলুজ্জামান রাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমরা শুনেছি, যখন ফেরিটি ডুবতে থাকে তখন হুমায়ুন সবাইকে সতর্ক করে। একে একে সবাইকে ট্রলারে তুলে দেন। শেষে আর তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

Also Read: ‘ভোর থেকে পানি উঠছিল’ ফেরিতে

Also Read: পাটুরিয়ায় ফেরি ডুবির তদন্তে দুই কমিটি

Also Read: ডুবে যাওয়া ফেরি তুলতে ঘটনাস্থলে হামজা, রুস্তমও যাচ্ছে

Also Read: পাটুরিয়ায় যানবাহন নিয়ে ডুবেছে ফেরি, নিখোঁজ ১

দুপুরের দিকে পাটুরিয়া ঘাট এলাকার বাসিন্দা পঞ্চাশোর্ধ্ব রিয়াজ উদ্দীন মেম্বার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলছিলেন, “আমার ছেলের ঘাটে দোকান। আমার বাড়িও ঘাটের সঙ্গেই। সকালে তো মেলা ঠান্ডা। হঠাৎ শুনি ফেরি ডুবছে। তখন ঘাটে আসলাম।

“ফেরি থেকে ট্রলারে করে কয়েকজনকে নিয়ে ঘাটে আসল। সেখানে একজন ফেরির স্টাফ বলতেছিলেন, তিনি হুমায়ুনকে নীচে (ফেরির নীচতলা) মোবাইল আনতে যেতে দেখেছেন। হুমায়ুন নীচে গেছেন আর ফেরি ডুবে গেছে”, বলেন রিয়াজ উদ্দিন।

প্রত্যক্ষদর্শী ফেরি সেক্টরের ম্যানেজার সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত ফেরিতে থাকা সবাই আত্মরক্ষার চেষ্টা করেছেন। ফেরিটি যখন ডুবছিল হয়তো কোনো কিছুর চাপায় (হুমায়ুন) নীচে ফেরির মধ্যে আটকে আছেন।

এ দুর্ঘটনায় জেলা প্রশাসন ও বিআইডব্লিউটিসির পক্ষ থেকে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জেলা প্রশাসক রেহেনা আকতার জানিয়েছেন, এই ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সানজিদা জেসমিনকে প্রধান করে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান মতিউর রহমান বলেন, এই দুর্ঘটনার অনুসন্ধানে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি করা হয়েছে। 

(প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য দিয়েছেন রাজবাড়ী প্রতিনিধি শামিম আহমেদ।)