আর্জেন্টিনার এই হার বিশ্বকাপের ‘সবচেয়ে বড় অঘটন’

যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ডেটা কোম্পানি নিলসন গ্রেসনোট বিভিন্ন হিসাব-নিকাশ করে বলছে, বিশ্ব মঞ্চে এর চেয়ে বড় ‘আপসেট’ নেই একটিও।

স্পোর্টস ডেস্ক
Published : 22 Nov 2022, 04:01 PM
Updated : 22 Nov 2022, 04:01 PM

ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে ৫১ নম্বরে সৌদি আরব, আর্জেন্টিনার অবস্থান তৃতীয়। এতেই স্পষ্ট শক্তির দিকে কতটা এগিয়ে লাতিন আমেরিকার দলটি। শুধু তাই নয়, টানা ৩৬ ম্যাচের অপরাজেয় রথে চড়ে মধ্যপ্রাচ্যের দলটির বিপক্ষে বিশ্বকাপে খেলতে নেমেছিল তারা। কিন্তু সব পরিসংখ্যানকে ভুল প্রমাণ করে লিওনেল স্কালোনির দলকে হারিয়ে চমক দেখাল সৌদি আরব। 

দোহার লুসাইল স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ২-১ গোলে জিতেছে সৌদি আরব। 

বিশ্বকাপে এমন বিস্ময় জাগানিয়া ফল হয়েছে আগেও। তার মধ্যে এই ম্যাচের অবস্থান কোথায়? উত্তরটা কৌতুহল জাগানিয়া। যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ডেটা কোম্পানি নিলসন গ্রেসনোটের হিসেবে, একবারে চূড়ায়! অর্থাৎ বৈশ্বিক আসরে এটাই সবচেয় বড় ‘আপসেট।’ 

নিলসন গ্রেসনোট কোম্পানির মতে, সৌদি আরবের এই জয় ছাড়িয়ে গেছে ১৯৫০ আসরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের অবিশ্বাস্য ১-০ গোলের জয়কেও। যেখানে ইংল্যান্ডের হারের সম্ভাবনা ছিল ৯.৫ শতাংশ। তাদের তালিকায় এখন এটি দুই নম্বরে। 

নিলসন গ্রেসনোট একটি জটিল ফর্মুলা ব্যবহার করে বিশ্বকাপের অঘটনের তালিকায় তৈরি করতে। যেখানে বিবেচনায় নেওয়া হয় র‍্যাঙ্কিং, দলের শক্তি, অবস্থান ও ইতিহাসকে। তাদের এই হিসাব-নিকাশে সৌদি আরবের বিপক্ষে আর্জেন্টিনার হারের সম্ভাবনা ছিল মাত্র ৮.৭ শতাংশ। 

ইতিহাসে জায়গা করে নেওয়া কয়েকটি অঘটন জায়গা পায়নি নিলসন গ্রেসনোটের তালিকার সেরা দশে। ১৯৬৬ আসরে ইতালির বিপক্ষে দক্ষিণ কোরিয়ার জয়, ১৯৯০ আসরে ক্যামেরুনের বিপক্ষে তখনকার শিরোপাধারী আর্জেন্টিনার প্রথম ম্যাচেই হার। 

এদিন ম্যাচের দশম মিনিটে লিওনেল মেসির সফল স্পট কিকে প্রত্যাশিতভাবেই এগিয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। এরপর প্রথমার্ধে আরও তিনবার বল জালে পাঠায় তারা। কিন্তু অফসাইডের কারণে কোনোটিতেই মেলেনি গোল। 

টানা সবচেয়ে বেশি ৩৭ ম্যাচ জয়ের রেকর্ড গড়ার পথে থাকা আর্জেন্টিনা দ্বিতীয়ার্ধে হারিয়ে ফেলে খেই। ৬ মিনিটের ব্যবধানে ২ গোল খেয়ে পিছিয়ে যে পড়ে তারা, এরপর অনেকটা সময় থাকলেও পারেনি ঘুরে দাঁড়াতে। 

৪৮ মিনিটে ডি-বক্সে বল পেয়ে আড়াআড়ি শটে গোল করে সৌদি আরবকে সমতায় ফেরান সালেহ আল শেহরি। সেই ধাক্কা সামাল দেওয়ার আগেই দ্বিতীয় গোল খেয়ে বসে আর্জেন্টিনা। ৫৩তম মিনিটে ডি-বক্সের মাথায় আলগা বল পেয়ে তিন জনকে কাটিয়ে বুলেট গতির শটে দলকে এগিয়ে নেন সেলিম আল দাওয়াসারি। 

নিলসন গ্রেসনোট-এর আপসেটের এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে ২০১০ সালে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে স্পেনের ১-০ গোলে হার। এই ম্যাচে সুইসদের জয়ের সম্ভাবনা ছিল ১০.৩ শতাংশ। 

১৯৮২ আসরে ১৩.২ শতাংশ সম্ভাবনা নিয়েই পশ্চিম জার্মানিকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছিল আলজেরিয়া। আর ২০০৬ সালে চেক প্রজাতন্ত্রের বিপক্ষে ২-০ তে জিতেছিল ঘানা। যেখানে তাদের জয়ের সম্ভাবনা ছিল ১৩.৯ শতাংশ। 

পরের পাঁচটি স্থানে যথাক্রমে ১৯৫০ সালে উরুগুয়ের বিপক্ষে ব্রাজিলের হার (১৪.২ শতাংশ), ২০১৮ সালে জার্মানির বিপক্ষে দক্ষিণ কোরিয়ার জয় (১৪.৪ শতাংশ), ১৯৫৮ আসরে ওয়েলসের কাছে হাঙ্গেরির হার (১৬.২ শতাংশ), ১৯৮২ সালে স্পেনের বিপক্ষে নর্দান আয়ারল্যান্ডের জয় (১৬.৫ শতাংশ) এবং ২০০২ সালে সেনেগালের বিপক্ষে ফ্রান্সের হার (১৭.৩ শতাংশ)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক