হলান্ডের জোড়া গোলে ম্যানচেস্টার সিটির জয়

প্রিমিয়ার লিগে ৪১৯ মিনিটের গোল খরা কাটালেন আর্লিং হলান্ড, লিভারপুলকে টপকে আপাতত শীর্ষে উঠল ম্যানচেস্টার সিটি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Feb 2024, 02:35 PM
Updated : 10 Feb 2024, 02:35 PM

প্রথমার্ধের বিবর্ণতা ঝেড়ে বিরতির পর ভালো খেলল ম্যানচেস্টার সিটি। জোড়া গোলের আনন্দে মাতলেন আর্লিং হলান্ড। এভারটনকে ফের হারিয়ে আপাতত লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠল পেপ গুয়ার্দিওলার দল।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে শনিবার প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ২-০ গোলে জিতেছে শিরোপাধারীরা। দ্বিতীয়ার্ধে ১৪ মিনিটের মধ্যে গোল দুটি করেন হলান্ড।

লিগে এই নিয়ে টানা ছয় ম্যাচ জিতল সিটি। ঘরের মাঠে লিগে অপরাজিত রইল টানা ২২ ম্যাচে (১৮ জয় ও ৪ ড্র)।

এভারটনের বিপক্ষে প্রথম দেখায় গত ডিসেম্বরে ৩-১ গোলে জিতেছিল ম্যানচেস্টারের দলটি।

প্রথমার্ধে প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের কোনো পরীক্ষাই নিতে পারেনি সিটি। হলান্ডের একটি হেড উড়ে যায় অনেক ওপর দিয়ে। প্রথমার্ধে গোলের জন্য সব মিলিয়ে স্বাগতিকদের ৯ শটের একটিও লক্ষ্যে থাকেনি।

২০২২ সালের অগাস্টের পর এই প্রথম প্রিমিয়ার লিগের কোনো ম্যাচে প্রথমার্ধে একটি শটও লক্ষ্যে রাখতে পারল না সিটি। ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ওই ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে হলান্ডের হ্যাটট্রিকে ৪-২ গোলে জিতেছিল তারা।

প্রথমার্ধে এভারটনও পারেনি উল্লেখযোগ্য কোনো সুযোগ তৈরি করতে। এই সময়ে তারা একটি শট লক্ষ্যে রাখলেও তা গোলরক্ষককে ভাবাতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধেও অনেকটা সময় প্রতিপক্ষের বক্সে যথেষ্ট কার্যকর হতে পারছিল না সিটি। অবশেষে ৭১তম মিনিটে লক্ষ্যে প্রথম শট নিতে পারে তারা, সেটিতেই মেলে জালের দেখা। তাদের কর্নার ক্লিয়ার করতে পারেনি এভারটন। কাছ থেকে জোরাল কোণাকুণি শটে লক্ষ্যভেদ করেন হলান্ড।

চার ম্যাচ পর লিগে গোলের দেখা পেলেন ২৩ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। মাঝে ৪১৯ মিনিটে জাল খুঁজে পাননি তিনি।

৮৫তম মিনিটে চমৎকার এক গোলে ব্যবধান বাড়ান হলান্ড। দ্বিতীয়ার্ধে বদলি নামা কেভিন ডে ব্রুইনের পাস মাঝমাঠে ধরে প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারকে গতিতে ছিটকে ফেলে এগিয়ে যান তিনি, এরপর ওয়ান-অন-ওয়ানে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন নরওয়ের তারকা।

১৮ ম্যাচে ১৬ গোল নিয়ে আসরের সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনিই। ১৪ গোল নিয়ে দুই নম্বরে আছেন লিভারপুলের তারকা মোহামেদ সালাহ।

যোগ করা সময়ে সফরকারীরা সিটির জালের বল পাঠালেও অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি। একেবারে শেষ মুহূর্তে ডে ব্রুইনের চিপ শট ওপরের জালে পড়ায় ব্যবধানও আর বাড়েনি।

২৩ ম্যাচে ১৬ জয় ও ৪ ড্রয়ে সিটির পয়েন্ট হলো ৫২। সমান ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে নেমে গেল লিভারপুল। দিনের পরের ম্যাচে বার্নলিকে হারিয়ে শীর্ষে ফেরার সুযোগ থাকছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলের সামনে।

২৪ ম্যাচে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে ১৮ নম্বরে আছে এভারটন।