শেরপুরে প্রবাসীর লাশ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ আটক ৪

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী মামলা করেছেন বলে পুলিশ জানায়।

শেরপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 March 2024, 04:29 PM
Updated : 31 March 2024, 04:29 PM

শেরপুরের প্রত্যন্ত চর এলাকা থেকে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাবেক এক ইউপি চেয়ারম্যানসহ চারজনকে আটক করা হয়েছে।

রোববার ভোরে সদর উপজেলার চর পক্ষীমারী ইউনিয়নের চুনিয়ারচর এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয় বলে শেরপুর সদর থানার ওসি মো. এমদাদুল হক জানান।

৪৮ বছর বয়সি নিহত আব্দুল হালিম জীবন শেরপুর শহরের মধ্য নওহাটা এলাকার সাইদুর রহমান সুরুজ মাস্টারের ছেলে।

‘তদন্তের স্বার্থে’ আটকদের নাম বলছে না পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, ১৫/১৬ বছর আগে আব্দুল হালিম জীবন ডিভি লটারিতে নাগরিকত্ব  পেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে যান। পরে বিয়ে করে স্ত্রীকেও সেদেশে নিয়ে যান। বছর দুয়েক আগে তিনি দেশে এসে আর ফেরেননি।  

স্থানীয়রা আরও জানান, সম্প্রতি তিনি শেরপুর শহরের চাপাতলী এলাকায় আতিয়া আক্তার নামে এক নারীকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন।

আতিয়া আক্তার বলেন, “শনিবার দুপুর ২টার দিকে চর পক্ষীমারী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রউফসহ কয়েকজন জীবনকে ডেকে নিয়ে যান। এরপর তিনি আর বাড়ি ফেরেননি। ভোরে চুনিয়ারচর এলাকা থেকে তার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধারের খবর পাই।”

আতিয়া অভিযোগ করে বলেন, “এই আব্দুর রউফ আমার স্বামীকে ডেকে নিয়ে বিভিন্ন মামলা-মোকদ্দমা ও ঝামেলায় জড়িয়েছে। হাতিয়ে নিয়েছে অনেক টাকা-পয়সা। এ নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরেই রউফসহ তার চক্রের লোকজন জীবনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। থানায় মামলা করা হয়েছে।”

আব্দুর রউফের বাবা শেরপুর সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ইলিয়াছ উদ্দিন জানান, ছেলে শনিবার রাতে একটি কাজের জন্য সদর থানায় গেলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। রউফ বর্তমানে ডিবি হেফাজতে রয়েছে।  

ওসি এমদাদুল হক জানান, নিহতের স্ত্রী আতিয়া আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। জেলা গোয়েন্দা পুলিশ মামলাটির তদন্ত করছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।