নারায়ণগঞ্জে শাওনের মৃত্যু: পুলিশের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন বিএনপির

মামলায় জেলা পুলিশ সুপারসহ ৪২ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যকে আসামি করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Sept 2022, 07:27 AM
Updated : 4 Sept 2022, 07:27 AM

নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের মধ্যে ‘যুবদলকর্মী’ শাওন প্রধানের মৃত্যুর ঘটনায় এবার আদালতে হত্যা মামলার আবেদন করেছে বিএনপি।

দলটির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী রোববার সকালে নারায়ণগঞ্জের মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে এ মামলার আবেদন করেন।

আদালত পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান জানান, বিচারিক হাকিম ইমরান মোল্লা বাদীর শুনানি নিয়ে বিষয়টি আদেশের অপেক্ষায় রেখেছেন।

জেলার পুলিশ সুপারসহ ৪২ জন পুলিশ সদস্যকে এ মামলায় আসামি করা হয়েছে বলে বাদীর আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার জানান৷

তিনি বলেন, “পহেলা সেপ্টেম্বর বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ছিল৷ সারাদেশে বিএনপি শান্তিপূর্ণ মিছিল করেছে৷ কিন্তু নারায়ণগঞ্জসহ কিছু জায়গায় পুলিশ বিনা কারণে উসকানি দিয়ে শান্তিপূর্ণ মিছিলে সরাসরি গুলি করেছে৷

“এতে বহু নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন এবং যুবদলের কর্মী শাওন বুকে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান৷ মিডিয়া, পত্রিকা এবং সেখানে যারা উপস্থিত ছিলেন তাদের কাছ থেকে জেনে আদালতে এ মামলা দায়ের করলাম৷”

মামলা করার জন্য সকাশ ১০টায় আদালতে উপস্থিত হন রুহুল কবির রিজভী৷ পরে আদালত থেকে বেরিয়ে এই বিএনপি নেতা সাংবাদিকদের বলেন, “এটি অন্যায় হয়েছে, চরম অন্যায়৷ কাটছাঁট করার পরও সংবিধানে এখনও যতটুকু অধিকার আছে, তাতে গণতান্ত্রিক অধিকার হিসেবে সমাবেশ করা ও ব়্যালি করার অধিকার আছে৷

“সেই অধিকারটুকুও সরকার হরণ করেছে৷ এর প্রমাণ গত পহেলা সেপ্টেম্বরের ঘটনা৷ সরকার গণতান্ত্রিক অধিকারের কেোটাই রাখতে চায় না৷ একদলীয় সরকারের যে নমুনা, তারই চূড়ান্ত বহিঃপ্রকাশ হচ্ছে৷”

আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার বলেন, “পুলিশের এসআই কনক, যার গুলিতে শাওন নিহত হয়েছেন, তাকে এক নম্বর আসামি করা হয়েছে৷ এছাড়া জেলা পুলিশ সুপার, তিনজন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সদর মডেল থানার ওসিসহ মোট ৪২ জন পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়েছে৷”

আসামির তালিকায় যাদের নাম আছে, তারা হলেন- ডিবির এসআই মাহফুজুর রহমান কনক, সদর থানার ওসি আনিচুর রহমান মোল্লা, জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (‘ক’ অঞ্চল) নাজমুল আলম, এসআই কামরুজ্জামান, ডিবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আমীর খসরু, কনস্টেবল শাহরুল আলম, মো. সোহাগ, মো. আরিফ দেওয়ান, ফেরদৌস দেওয়ান, সেলিম, রিপন, যুগল, মামুন, রিয়াজ, হাফিজ, এএসআই ইকবাল হোসেন, দেলোয়ার হোসেন, সোহরাব, কনস্টেবল জাকির হোসেন, নাঈম, রাকিব, আনিস, সাইদুল, ইনজামামুল, রাসেল, খলিলুর রহমান, মোহসীন মিয়া, মোস্তাকিম, শাহাদাত হোসেন, ফখরুল ইসলাম, আরিফ দেওয়ান, দীপক সাহা, শাহীন, ফরিদ উদ্দিন, মুরাদুজ্জামান, শাহীন, কবির হোসেন, মান্নান, রুবেল, সোহাগ৷

এই ৪২ জনের নাম উল্লেখ করার পাশাপাশি অজ্ঞাতপরিচয় আরও একশ থেকে দেড়শ পুলিশ সদস্যকে আসামি করা হয়েছে মামলায়।

দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির নেতা-কর্মীরা বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় নগরীর ডিআইটিতে আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনের সামনে থেকে শোভাযাত্রা বের করার প্রস্তুতি নেন। পুলিশ বাধা দিলে তা উপেক্ষা করে বিএনপির মিছিল পাঠাগারের সামনে থেকে শহরের দুই নম্বর রেলগেইট এলাকায় যাওয়ার চেষ্টা করে।

পুলিশ লাঠিপেটা শুরু করলে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা দুই নম্বর রেলগেইট এলাকায় চার রাস্তার মোড়ের চারদিকে ছড়িয়ে পড়েন। তারা পুলিশের দিকে ঢিল ছুড়তে শুরু করলে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

সংঘর্ষ চলাকালে গুলশান হলের সামনে মারা যান ২০ বছর বয়সী শাওন প্রধান। ময়নাতদন্তের পর সেদিন গভীর রাতে পুলিশি প্রহরায় তার লাশ দাফন করা হয়।

বিএনপি নেতারা দাবি করে আসছেন, শাওন বক্তাবলী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে, শাওন রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত নন।

সংঘর্ষের পর সেদিন রাতেই শাওনের বড় ভাই মিলন হোসেন বিএনপির অজ্ঞাতপরিচয় ৫ হাজার জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

সেখানে বলা হয়, “বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের আনুমানিক ৫ হাজার জনের মতো নেতা-কর্মী পুলিশের উপর ইট-পাটকেল, ককটেলের বিস্ফোরণ ও আগ্নেয়াস্ত্র দ্বারা গুলি করার সময় আমার ভাই শাওন রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের নিক্ষিপ্ত ইট ও আগ্নেয়াস্ত্রের গুলির আঘাতে মাথায় ও বুকে গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করে।”

পরদিন পুলিশ বাদী হয়ে আরেকটি মামলা করে, যেখানে ৭১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত পরিচয় আরও ৪০০০-৫০০০ জন বিএনপিকর্মীকে আসামি করা হয়।

আরও পড়ুন

Also Read: নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশের মামলা, আসামি ৫০০০

Also Read: শাওনের শরীরে দুটি ক্ষত, গুলি মেলেনি: চিকিৎসক

Also Read: মামলা নিয়ে যা বলছে নারায়ণগঞ্জের শাওনের পরিবার

Also Read: শাওনের মৃত্যু ‘বিএনপির গুলিতে’, অভিযোগ ভাইয়ের মামলায়

Also Read: শাওনের দাফন হলো পুলিশের পাহারায়

Also Read: ‘আমার পুতে জানি কয়বার মা কইয়া ডাকছে’

Also Read: শাওনকে বিএনপি বলছে যুবদল কর্মী, পরিবারের দাবি অন্য

Also Read: বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষে রণক্ষেত্র নারায়ণগঞ্জ, তরুণ নিহত

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক