মাদারীপুরে ছাত্রলীগ নেতার স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

ওসি বলেন, এটি ‘আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যা’ তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বলা যাবে।

মাদারীপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 Feb 2024, 04:59 AM
Updated : 10 Feb 2024, 04:59 AM

মাদারীপুরের কালকিনিতে এক ছাত্রলীগ নেতার স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের বাবার দাবি, তার মেয়েকে ‘পরিকল্পিতভাবে হত্যা’ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শ্বশুরবাড়ির লোকজন ওই নারীকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে জানিয়েছেন কালকিনি থানার ওসি নাজমুল হাসান।

নিহত ২০ বছরের তনিমা চৌধুরী চৈতী ডাসার উপজেলার কাজী বাকাই ইউনিয়নের পূর্ব মাইজপাড়া গ্রামের সেলিম চৌধুরীর মেয়ে ও কালকিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন ফকিরের স্ত্রী।

স্বজনদের বরাতে ওসি নাজমুল হাসান জানিয়েছেন, প্রেমের সম্পর্কের পর এক বছর আগে চৈতীর সঙ্গে দক্ষিণ রাজদী গ্রামের আবুল ফকিরের ছেলে শাহিন ফকিরের বিয়ে হয়। তারপর থেকে চৈতী স্বামীর বাড়িতেই বাস করছিল। বিয়ের পর স্বামীর পরিবারের সঙ্গে চৈতীর পারিবারিক কলহ লেগে থাকত।

ওসি জানান, শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দাবি মঙ্গলবার সন্ধ্যার আগে চৈতীকে রুমে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তারা তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

তবে এটিকে ‘পরিকল্পিত হত্যা’ দাবি করে চৈতীর বাবা সেলিম চৌধুরী বলেন, “আমার মেয়েকে শাহিনের পরিবারের লোকজন প্রায়ই মারধর করত। আমার মেয়েকে ওরা মারধর করেই মেরে ফেলেছে। আমি এর বিচার চাই।”

ওসি নাজমুল বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এটি ‘আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যা’ তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে বলা যাবে। 

[প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক]