মেহেরপুরে ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুজনের, আটক চালক

পুলিশ জানায়, ট্রাক ও চালককে আটক এবং আলামত হিসেবে বাইসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে।

মেহেরপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 April 2024, 06:16 AM
Updated : 1 April 2024, 06:16 AM

মেহেরপুরে সিমেন্ট বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় দুই বাইসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। 

সোমবার সকাল ৯টার দিকে মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা সড়কের সদর উপজেলার চাঁদবিল ইমপেক্ট হাসপাতালের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে মেহেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সর্কেল) আব্দুর করিম জানান। 

নিহতদের একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তিনি হলেন- মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি ইউনিয়নের চাঁদবিল গ্রামের লিটন আলীর ছেলে হাসান আলী (১৯)। 

প্রত্যক্ষদর্শী বাবুল আক্তার বলেন, তিনি ভ্যানগাড়ি চালিয়ে মেহেরপুরে যাচ্ছিলেন। তার সামনে দুজন দুটি বাইসাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিল মেহেরপুরের দিকে। এ সময় সিমেন্ট বোঝাই দশ চাকার একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ওই দুই সাইকেল চালককে চাপা দিয়ে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা দেয়। তখন তিনি এবং আশপাশের লোকজন চালকসহ ট্রাকটি আটক করে থানায় খবর দেন। 

তিনি বলেন, “চালক ঘুমন্ত অবস্থায় গাড়ি চালনোর কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। ট্রাক চালক বাবুল হোসেনের বাড়ি মাগুরা জেলায় বলে পরে জানতে পেরেছি।” 

মেহেরপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, হাসানসহ দুই বাইসাইকেল আরোহী চাঁদবিল এলাকা থেকে প্রধান সড়ক হয়ে মাঠে ঘাস  কাটার জন্য যাচ্ছিলেন। পথে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক পেছন থেকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। 

নিহত হাসানের বাবা লিটন আলী বলেন, “এত নিষেধ করলাম গরুর ঘাস আছে; আজ মাঠে যাওয়ার দরকার নেই। ছেলে বলল, সকাল সকাল ঘাস কেটে গরুকে টাটকা ঘাস খাইয়ে ঈদের কেনাকাটা করতে শহরে যাব। 

“আমার সুস্থ তাজা ছেলি বাড়ি থেকে সাইকেল নিয়ে বের হল। আধা ঘণ্টার ব্যবধানে এখন ছেলির মরদেহ নিতে এসেছি, এই কষ্ট সহ্য করব কিভাবে?” 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুর করিম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ট্রাক এবং চালককে আটকসহ আলামত হিসেবে বাইসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। 

এছাড়া নিহত অন্যজনের পরিচয় জানার চেষ্টা এবং ট্রাক চালকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।