কুমিল্লায় শিশু হত্যায় সৎ বাবার মৃত্যুদণ্ড

২০২২ সালে বাপ্পীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ জলাশয়ের কচুরিপানার নিচে লুকিয়ে রাখেন রুবেল।

কুমিল্লা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Feb 2024, 11:09 AM
Updated : 8 Feb 2024, 11:09 AM

কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলায় সাত বছরের এক শিশুকে হত্যার দায়ে একজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। 

কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রোজিনা খান বৃহস্পতিবার আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা দেন বলে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ সেলিম মিয়া জানান। 

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মো. সেলিম ওরফে রুবেল (২৫) সদর দক্ষিণ উপজেলার ধনাজোরা গ্রামের বাসিন্দা। 

মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে রায়ে। 

মামলার নথি থেকে জানা যায়, রুবেলের নবজাতক ছেলের মাথায় তার সৎ ছেলে আরাফাত হোসেন বাপ্পী আঙুল দিয়ে চাপ দেয়। এতে রুবেল রেগে গিয়ে বাপ্পীকে থাপ্পড় মারে। এ নিয়ে শ্বাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়া হয় রুবেলের। 

সেই ক্ষোভ থেকে ২০২২ সালের ১৫ এপ্রিল বাপ্পীকে তার মামার বাড়ি উপজেলার তারাপুর গ্রাম থেকে অপহরণ করেন রুবেল। 

পরে তিনি তার বাড়ির অদূরে বাপ্পীকে শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ জলাশয়ের কচুরিপানার নিচে ডুবিয়ে রাখে। 

পরে ১৭ এপ্রিল পুলিশ ওই জলাশয় থেকে শিশু বাপ্পীর মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পরদিন নিহতের মামাতো ভাই আল-আমিন বাদী হয়ে রুবেলের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। পরবর্তীতে ঢাকা থেকে সেলিমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শাহীনুর ইসলাম ২০২২ সালের ৩০ অক্টোবর রুবেলের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। নয়জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত বৃহস্পতিবার তাকে দোষী সাব্যস্ত করে রায় দিল। 

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ সেলিম বলেন, “আমরা আশা করছি উচ্চ আদালত এ রায় বহাল রেখে দ্রুত কার্যকর করবে। এতে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।”