সাদুল্লাপুরের নিখোঁজ ব্যবসায়ী ফিরেছেন ৪ দিন পর

এমন ‘নাটকীয়ভাবে’ তিনি কেন নিরুদ্দেশ হয়েছিলেন তার কোনো জবাব দেননি।

তাজুল ইসলাম রেজাগাইবান্ধা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Nov 2022, 01:30 PM
Updated : 25 Nov 2022, 01:30 PM

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার ব্যবসায়ী জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হওয়ার চারদিন পর বাড়ি ফিরেছেন।

বৃহস্পতিবার রাতে তিনি বাড়ি এসেছেন বলে সাদুল্লাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এনায়েত কবীর জানান।

সাদুল্লাপুর উপজেলার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার (৫৫) গত রোববার গভীর রাতে বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হন। 

স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে তিনি বাড়ি ছেড়েছিলেন বলে জানালেও ওইদিন গভীর রাতে বাড়ি ফেরার পথে কেন হাঠৎ নিখোঁজ হন তার কোনো জবাব তিনি বা তার পরিবারের কেউ দেননি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সাদুল্লাপুর থানার পরিদর্শত এনায়েত কবীর বলেন, স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার বাড়ি ছেড়ে চলে যান। এ কয়েকদিন তিনি সিলেটে অবস্থান করেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন। 

জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার সাদুল্লাপুর উপজেলা সদরের বাজারে পশুখাদ্য ব্যবসায়ী ও উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের তরফবাজিত গ্রামের প্রয়াত গঙ্গাধর সরকারের ছেলে।  

তার ফেরার খবর পেয়ে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম প্রতিনিধি শুক্রবার তার বাড়ি যান। সেখানে তার সঙ্গে কথা হয়।

জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে তিনি সিলেটের জাফলং গিয়েছিলেন। সেখান থেকে তিনি বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে বাড়ি ফিরেছেন।

কিন্তু কেন এমন নাটকীয়ভাবে তিনি নিরুদ্দেশ হলেন; এমন প্রশ্নের কোনো সদুত্তর তিনি দেননি। এ সময় তার স্ত্রীও পাশে উপস্থিত ছিলেন।

তাকে প্রশ্ন করা হয়, “আপনি অভিমান করলে বাড়ি থেকে বের হয়ে চলে যেতেন; কিংবা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে চলে যেতেন। কিন্তু বাজার থেকে ফেরার পথে ওষুধ কিনেছেন তারপর বাড়ির দিকে রওয়ানা দিয়েছেন। তখন কেন হঠাৎ নাটকীয়ভাবে স্ত্রীর প্রতি অভিমান হলো?” 

এ প্রশ্নের কোনো উত্তর তিনি কিংবা তার স্ত্রী দেননি।

তাকে আরও জিজ্ঞেস করা হয়, অভিমান করে চলে গেলে তো স্যান্ডেল ফেলে যেতে হয় না; কেন তিনি স্যান্ডেল ফেলে গেলেন। ওই প্রশ্নেরও তিনি কোনো জবাব দেননি।

জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার নিখোঁজ হওয়ার পর তার বড় ভাই চন্দ্র কিশোর সরকার পরদিন [সোমবার] বিকালে সাদুল্লাপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

ডায়েরিতে বলা হয়, রোববার [২০ নভেম্বর] রাত পৌনে ১২টার দিকে জ্যোতিশ চন্দ্র সরকার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে সাদুল্লাপুর বাজারের চৌমাথায় মেডি প্লাস ফার্মেসী থেকে ওষুধ কিনে নিজের মোটরসাইকেলে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। এরপর থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

পরদিন সকালে বাড়ির অদূরে স্থানীয় সেরাজুল মিয়ার মিল-চাতাল এলাকায় কাঁচা সড়কের পাশে তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেল, হেলমেট ও স্যান্ডেল পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন:

সাদুল্লাপুরে ব্যবসায়ী নিখোঁজ, ‘আতঙ্ক-উৎকণ্ঠায়’ বণিক সমিতি

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক