অবিনাশী একুশের গান

মায়ের ভাষার স্বীকৃতি আদায়ে রক্ত ঝরা আন্দোলনের স্মৃতি, শোক আর চেতনাকে যুগে যুগে সুরে কথায় ধারণ করেছেন এ দেশের গীতিকার-সুরকার ও শিল্পীরা। এর মধ্যে আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর লেখা ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ কবিতাটি সুরস্রষ্টা আবদুল লতিফ এবং আলতাফ মাহমুদের সুরে হয়ে উঠেছে একুশের অনিবার্য গান।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Feb 2024, 07:03 AM
Updated : 21 Feb 2024, 07:03 AM

ভাষার গান রচনা শুরু হয় ১৯৪৮ সালে ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’ আন্দোলনের প্রথম পর্ব থেকে। প্রথম দিকের কবি ও গীতিকার অধ্যাপক আনিসুল হক চৌধুরী রচিত ‘শোনেন হুজুর, বাঘের জাত, এই বাঙালেরা’ এবং ‘বাংলার বুকের রক্তে রাঙানো আটই ফাল্গুন’ এই গানদুটোর তথ্য বিভিন্ন পত্রপত্রিকা পাওয়া গেলেও শিল্পীদের কণ্ঠে গাওয়া গানদুটো সোশাল মিডিয়ায় কোথাও পাওয়া যায় না। 

এছাড়া আব্দুল লতিফের ‘ওরা আমার মুখের ভাষা, কাইড়া নিতে চায়’, একুশের সূচনা পর্বে দারুণ জনপ্রিয়তা পাওয়া ভাষা সংগ্রামী গাজীউল হকের ‘ভুলব না, ভুলব না, একুশে ফেব্রুয়ারি ভুলব না’, আলতাফ মাহমুদের আরেকটি গান ‘রক্তে আমার প্রলয় দোলা’, ‘মৃত্যুকে যারা তুচ্ছ করিল, ভাষা বাঁচাবার তরে’, ‘সালাম সালাম হাজার সালাম’সহ আরও অনেক গান জাগিয়ে রেখেছে একুশকে। 

‘ওরা আমার মুখের ভাষা কাইড়া নিতে চায়’ শিরোনামের গানটির কথা লিখেছেন এবং সুর করেছেন আব্দুল লতিফ।

‘মৃত্যুকে যারা তুচ্ছ করিল, ভাষা বাঁচাবার তরে’ শিরোনামের ভাষার এই গানটি লিখেছেন ভাষাসংগ্রামী প্রকৌশলী মোশারেফ উদ্দিন আহমদ। সুর করেছেন আলতাফ মাহমুদ।

আবদুল গাফফার চৌধুরী লিখেছিলেন এক অমর কবিতা, ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’। এই কবিতা একটি অনিনাশী গান হওে ওঠে প্রথমে আব্দুল লতিফ এবং পরে আলতাফ মাহমুদের সুরে।

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী অমর একুশে নিয়ে লেখা আরও একটি গান ‘রক্তে আমার আবার প্রলয় দোলা’। এই গানটি সুর করেছেন আব্দুল লতিফ।

ভাষাসংগ্রামী গাজীউল হকের লেখা ‘ভুলব না, ভুলব না, একুশে ফেব্রুয়ারি ভুলব না’ গানটিতে সুরারোপ করেছিলেন তার ছোট ভাই অনুজ নিজাম উল হক।

‘সালাম সালাম হাজার সালাম’ লিখেছেন ফজল-এ খোদা। গানটিকে সুর করার পাশাপাশি গেয়েছেন গায়ক আব্দুল জব্বার।

কবি শামসুর রাহমানের কথা ও খন্দকার নজরুল ইসলামের সুরে রুনা লায়লা গেয়েছেন ‘ফসলের মাঠে মেঘনার তীর’।

রুনা লায়লার গাওয়া আরেকটি গান ‘আমায় গেঁথে দাওনা মাগো, একটি পলাশ ফুলের মালা’। এই গানের গীতিকার নজরুল ইসলাম বাবু, সুর করেছেন আলাউদ্দিন আলী।

নজরুল ইসলাম বাবুর কথা ও আলাউদ্দিন আলীর সুরে সাবিনা ইয়াসমীন গেয়েছেন ‘মায়ের শেখানো ভাষা’ নব্বইয়ের দশক।