চাঁদা দাবি: স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা দেবুসহ ৬ আসামিই খালাস

বাদী আর মামলাটি চালাতে চাইছিলেন না।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Nov 2023, 03:03 PM
Updated : 23 Nov 2023, 03:03 PM

প্রবাসীর কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগে ছয় বছর আগের এক মামলায় চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি দেবাশীষ নাথ দেবুসহ ছয় আসামিকে খালাস দিয়েছে আদালত।

চট্টগ্রামের সপ্তম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শামছুল আরেফীন বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করেন।

এর আগে গত জুনে আদালতে দেওয়া সাক্ষ্যে মামলার বাদী প্রবাসী বন্ধন নাথ জানান, তিনি আসামিদের ‘চেনেন না’ এবং এই মামলা তিনি আর চালাতে চান না। এরপর ওই মামলায় আদালতে আর কেউ সাক্ষ্য দেননি।

চট্টগ্রাম মহানগর আদালতের পিপি আবদুর রশীদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মামলাটির বাদী সাক্ষ্য দিতে এসে আদালতে জানিয়েছিলেন, তিনি আর মামলাটি চালাতে আগ্রহী নন।

“এরপর বহু তারিখ পড়েছে। কিন্তু ধার্য দিনে আর কোনো সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দিতে আসেননি। তাই আদালত আজ ছয় আসামির সবাইকে খালাসের আদেশ দিয়েছেন।”

২০১৮ সালে করা এ মামলার আসামি ছিলেন সেসময়ের নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য এ টি এম মঞ্জুরুল ইসলাম রতন ও দেবাশীষ নাথ দেবু, শুলকবহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম নাজমুল আহসান, নগর ছাত্রলীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক আবু নাছের চৌধুরী, যুবলীগ কর্মী ইদ্রিস মিয়া ও ইমরান হোসেন।

নগরীর ষোলশহর দুই নম্বর গেইট এলাকায় প্রবাসী বন্ধন নাথের জমিতে বাড়ি নির্মাণের বাধা দেওয়ার ঘটনায় ২০১৮ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি পাঁচলাইশ থানায় মামলাটি হয়েছিল।

এ মামলায় দুই নম্বর আসামি করা হয়েছিল নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের তখনকার সদস্য দেবাশীষ নাথ দেবুকে।  অপর সদস্য এ টি এম মঞ্জুরুল ইসলাম রতনকে করা হয় এক নম্বর আসামি। মামলার পরদিন এই দুই নেতা গ্রেপ্তারও হয়েছিলেন।

তখন দেবুর অনুসারীরা দাবি করেছিল, ওই জমি কেনাবেচার মধ্যস্থতা করলেও প্রতিশ্রুত টাকা পরিশোধ না করায় বিরোধ তৈরি হয়।

Also Read: চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতৃত্বে দেবু ও আজিজ

Also Read: চাঁদাবাজির মামলায় চট্টগ্রাম নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির বিচার শুরু

দেবাশীষ নাথ দেবু গত বছরের ১০ মার্চ চট্টগ্রাম মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন।

২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর নগরীর পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওয়ালী ‍উদ্দিন আকবর ৬ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। গত বছরের ২১ অগাস্ট তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন চট্টগ্রামের পঞ্চম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ নারগিস আক্তার।