জন্মাষ্টমী: বিকালে শুভেচ্ছা বিনিময়, শোভাযাত্রা শুক্রবার

দুষ্টের দমন করতে যুগে যুগে পৃথিবীতে আবির্ভূত হন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ, এটাই সনাতন ধর্মালম্বীদের বিশ্বাস।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 August 2022, 06:08 AM
Updated : 18 August 2022, 06:08 AM

তিন দিনে গীতাযজ্ঞ, নামসংকীর্তন, শোভাযাত্রা, কৃষ্ণ পূজাসহ নানা আয়োজনে শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি উদযাপন করবে বাংলাদেশের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার বছর আগে দ্বাপর যুগে ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষের অষ্টমী তিথিতে মথুরা নগরীতে অত্যাচারি রাজা কংসের কারাগারে বন্দি দেবকী ও বাসুদেবের বেদনাহত ক্রোড়ে জন্ম নিয়েছিলেন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ।

অবতার হিসেবে তিনি প্রেম, সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার ব্রত নিয়ে পৃথিবীতে আবির্ভূত হন। ব্রতী হন অত্যাচারী ও দুর্জনের বিরুদ্ধে শান্তিপ্রিয় ভালো মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায়।

দুষ্টের দমন করতে একইভাবে যুগে যুগে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ পৃথিবীতে আসেন, সত্য ও সুন্দর ও ন্যায় প্রতিষ্ঠা করেন- এটাই সনাতন ধর্মালম্বীদের বিশ্বাস।

তারা মনে করেন, জন্মাষ্টমী ব্রত (উপবাস) পালনে সমস্ত পাপমোচন ও পূণ্যলাভ হয়। যারা নিয়মিত এ ব্রত পালন করেন, তাদের সৌভাগ্য, আরোগ্য ও সন্তান লাভ হয়। এছাড়া পরকালে স্বর্গপ্রাপ্তি নিশ্চিত হয়।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ও মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির যৌথ আয়োজনে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে কেন্দ্রীয়ভাবে বৃহস্পতিবার থেকে শুরু করেছে ‘শুভ জন্মাষ্টমীর’ তিন দিনে কর্মসূচি।

সার্জনীন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রমেন মণ্ডল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বিকাল সাড়ে ৪টায় ঢাকেশ্বরী মন্দির আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সন্ধ্যা ৭টায় বঙ্গভবনে সীমিত পরিসরে রাষ্ট্রপতি সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান হবে।”

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হবে গীতাযজ্ঞ। বিকাল ৪টায় পলাশী থেকে বের হবে জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রা। পলাশী, জগন্নাথ হল, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, দোয়েল চত্বর, নগর ভবন, গুলিস্তান গোলাপ শাহ মাজার হয়ে নবাবপুর সড়ক দিয়ে বাহাদুর শাহ পার্কে গিয়ে শেষ হবে এই শোভাযাত্রা। রাত ৮টায় রয়েছে কৃষ্ণ পূজা।

তৃতীয় দিন শনিবার তিনটায় ঢাকেশ্বরী মন্দির হবে আলোচনা সভা। ঢাকেশ্বরী মন্দির ছাড়াও ঢাকায় রামকৃষ্ণ মিশন, স্বামীবাগ আশ্রম, স্বামী ভোলানন্দ গিরি আশ্রম, প্রভু জগদবন্ধু মহাপ্রকাশ মঠ, বরদেশ্বরী কালিমাতা মন্দির ও শশ্মান, শিব মন্দির, রামসীতা মন্দির, মাধব গৌড়ীয় মঠসহ বিভিন্ন মন্দিরে জন্মাষ্টমীর অনুষ্ঠানমালা রয়েছে।

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সরকারি ছুটি। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হিন্দু সম্প্রদায়কে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বানী দিয়েছেন।

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সংগঠন অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতারসহ বেসরকারি টেলিভিশনও বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক