নেদারল্যান্ডসে নাইটক্লাবে জিম্মিকাণ্ডের অবসান, গ্রেপ্তার ১

গ্রেপ্তার ব্যক্তির কাছে একটি কালো রঙের ব্যাকপ্যাক এবং কয়েকটি ছুরি ছিল। সেগুলো দেখিয়ে তিনি নাইটক্লাবের কর্মীদের জিম্মি করেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 March 2024, 12:50 PM
Updated : 30 March 2024, 12:50 PM

নেদারল্যান্ডসের পূর্বাঞ্চলে একটি জনপ্রিয় নাইটক্লাবে এক ব্যক্তি অস্ত্র ও বিস্ফোরক নিয়ে প্রবেশ করে আত্মঘাতী হামলা চালানোর ভয় দেখিয়ে চারজনকে জিম্মি করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় ছয়ঘণ্টা পর ওই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, শনিবার ভোরে এক ব্যক্তি এডা নগরীর জনপ্রিয় ‘ক্যাফে পেটিকোট’ এ প্রবেশ করে আত্মঘাতী হামলা চলানোর হুমকি দিয়ে চারজনকে জিম্মি করে।

কিছুক্ষণ পর তিন জিম্মিকে মুক্তি দেওয়া হয়। প্রায় ছয়ঘণ্টা ধরে জিম্মি নাটক চলার পর চতুর্থ ব্যক্তির দেখা মেলে।

গ্রেপ্তার সন্দেহভাজন ব্যক্তি কী কারণে এ কাণ্ড করেছেন তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন পুলিশ। তার মানসিক স্বাস্থ্যের অবস্থা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

এর আগে পুলিশ বলেছিল, এখন পর্যন্ত তারা ‘সন্ত্রাসী হামলার উদ্দেশে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পরে এমন ইঙ্গিত পাননি’।

নেদারল্যান্ডসের সম্প্রচার মাধ্যম এনওএস-র খবরে বলা হয়, স্থানীয় সময় ভোট সোয়া ৫টার দিকে কর্তৃপক্ষকে একটি সম্ভাব্য জিম্মি পরিস্থিতির বিষয়ে সতর্ক করা হয়।

দুই মিনিটের মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বলে জানান ইস্ট নেদারল্যান্ডস পুলিশের প্রধান অ্যানে ইয়ান ওস্টারহির্ট।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, গ্রেপ্তার ব্যক্তির কাছে একটি কালো রঙের ব্যাকপ্যাক এবং কয়েকটি ছুরি ছিল। সেগুলো দেখিয়ে তিনি নাইটক্লাবে থাকা ব্যক্তিদের জিম্মি করেন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েই আগে নাইটক্লাবের আশেপাশের প্রায় দেড়শ বাড়ি খালি করে ফেলে এবং সিটিসেন্টার বন্ধ করে দেয়।

মেয়র রেনে ভারহুলস্ট বলেন, এই ঘটনা ‘অনেক মানুষকে প্রভাবিত করেছে, এবং ‘উচ্চ আবেগের’।

সন্দেহভাজন ব্যক্তি যখন নাইটক্লাবটিতে প্রবেশ করেন তখন সেখানকার কর্মীরা পরিচ্ছন্নতার কাজ করছিল।

চতুর্থ জিম্মিকে মুক্তি দেওয়ার পর সন্দেহভাজন ব্যক্তি একটি মুখঢাকা টুপি পরে নাইটক্লাবটি থেকে বের হয়ে আসে। পরে পুলিশ তাকে হতকড়া পরিয়ে মাটিতে শুইয়ে ফেলে।

জিম্মিকাণ্ডের পরপরই অজ্ঞাত সূত্রের বরাত দিয়ে নেদাল্যান্ডসের জাতীয় দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফ এ বলা হয়েছিল, জিম্মিদের মধ্যে ওই নাইটক্লাবের কয়েকজন কর্মী এবং সেটির মালিকও রয়েছে।

এঘটনায় নিরাপত্তার খাতিরে এডা নগরীগামী সব ট্রেন বাতিল করা হয়।