নাটকীয় ব্যর্থতা ভুলে মহাকাশে আবার স্টারশিপ পাঠাবেন মাস্ক

নাসার ‘আর্টেমিস’ প্রকল্পে স্টারশিপ রকেট ব্যবহারের জন্য এরইমধ্যে কয়েকশ কোটি ডলারের চুক্তি করেছে স্পেসএক্স। প্রকল্পটির লক্ষ্য হলো, আগামী কয়েক বছরের মধ্যে চাঁদে মানুষ পাঠানো।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 June 2023, 08:14 AM
Updated : 15 June 2023, 08:14 AM

প্রথম প্রচেষ্টা নাটকীয়ভাবে ব্যর্থ হওয়ার পর মহাকাশে পুনরায় স্পেসএক্স-এর সবচেয়ে বড় রকেট ‘স্টারশিপ’ পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছেন ইলন মাস্ক।

ঘোষণা অনুসারে, আট সপ্তাহের মধ্যে এই রকেট উৎক্ষেপণের দ্বিতীয় প্রচেষ্টা চালাতে পারে স্পেসএক্স।

এপ্রিলে চালানো প্রথম প্রচেষ্টাটি শেষ হয় উৎক্ষেপণের কয়েক মিনিটের মধ্যেই নাটকীয় এক বিস্ফোরণে, যেটির ফলে রকেটটি ধ্বংস হয়ে যায়।

টুইটারে স্টারশিপ সংশ্লিষ্ট আপডেট জানানোর অনুরোধের জবাবে মাস্ক বলেন, এর পরবর্তী পরীক্ষাটি চালানো হবে ‘ছয় থেকে আট সপ্তাহের মধ্যে’।

এর আগে স্পেসএক্স প্রধান বলেন, সৌরজগতে নভোচারী ও মালামাল আনানেওয়ার লক্ষ্যে তিনি স্টারশিপ রকেটের বিশাল এক বহর বানাতে চান।

নাসার ‘আর্টেমিস’ প্রকল্পে স্টারশিপ রকেট ব্যবহারের জন্য এরইমধ্যে কয়েকশ কোটি ডলারের চুক্তি করেছে স্পেসএক্স। প্রকল্পটির লক্ষ্য আগামী কয়েক বছরের মধ্যে চাঁদে মানুষ পাঠানো।

টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে স্পেসএক্স-এর ‘স্টারশিপ ফ্যাসিলিটি’ থেকে হয়েছিল প্রথম উৎক্ষেপণচেষ্টা। এবারের উৎক্ষেপণ সফল হলে রকেটটি ৯০ মিনিটে পৃথিবী প্রদক্ষিণ করে হাওয়াই উপকূলে অবতরণ করবে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে ব্রিটিশ সংবাদপত্র ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

‘স্টেইনলেস স্টিলের’ তৈরি এই স্টারশিপে কোনো যাত্রী থাকবে না। এর উচ্চতা ১২০ মিটার। পাশাপাশি, এক কোটি ৬৭ লাখ পাউন্ডের (৭৫ লাখ কেজির) থ্রাস্ট তৈরিতে সক্ষম এটি, যা মানুষকে চাঁদে নিয়ে যাওয়া ‘স্যাটার্ন ৫’ রকেটের ক্ষমতার দ্বিগুণ।

রকেটটির আকার বিবেচনায় নিলে, এতে দুটি ধাপ রয়েছে। এর মানে দাঁড়ায়, মহাকাশ কক্ষপথে যাত্রার বেলায় আড়াইশ টন বা মঙ্গলগ্রহে ভ্রমণের জন্য একশ মানুষ বহন করতে পারবে এটি।