কিশোর হ্যাকারের হাতে নাস্তানাবুদ উবার

হ্যাকারের স্ল্যাক পোস্টটি এতোটাই আকস্মিক ছিল যে পুরো বিষয়টিকে রসিকতা ভেবেছিলেন উবারের কর্মীরা।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Sept 2022, 01:14 PM
Updated : 16 Sept 2022, 01:14 PM

হ্যাকারের কবলে পড়েছে রাইড-হেইলিং সেবা উবারের নিজস্ব কম্পিউটার সিস্টেম। সাইবার নিরাপত্তায় জটিলতার কথা স্বীকার করলেও বিস্তারিত জানায়নি এ কোম্পানি।

সংবাদর্মীদের কাছে হ্যাকার দাবি করেছে, তার বয়স ১৮ বছর। মজা করে উবারের কম্পিউটার সিস্টেমে প্রবেশ করলেও এখন কোম্পানির সোর্স কোড ফাঁস করে দেওয়ার কথা ভাবছেন তিনি।

অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস এবং গুগল ক্লাউডসহ উবারের বেশ কিছু বাণিজ্যিক টুলে সম্পূর্ণ প্রবেশাধিকার পাওয়ার দাবি করেছেন ওই কিশোর হ্যাকার। উবার এরইমধ্যে কর্মীদের মধ্যে বহুল ব্যবহৃত বেশ কিছু সফটওয়্যারের ব্যবহার বন্ধ করে দিয়েছে বলে জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

হ্যাকিংয়ের ঘটনা সম্পর্কে জানতে উবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ভার্জ। কোম্পানির মুখপাত্র আলাদা করে কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে রাজি না হয়ে কোম্পানির টুইট দেখে নিতে বলেছেন।

হ্যাকিংয়ের ঘটনা নিশ্চিত করে উবার টুইটে বলেছে, “আমরা সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক একটি ঘটনার তদন্ত করছি। আমরা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি এবং নতুন কোনো আপডেট এলে এখানেই পোস্ট করব।”

ভার্জ জানিয়েছে, হ্যাকার নিজেই উবারের স্ল্যাক সিস্টেমে পোস্ট দিয়ে অভ্যন্তরীণ কম্পিউটার সিস্টেম হ্যাক করার ঘোষণা দিয়েছিলেন।

পোস্টে ওই কিশোর হ্যাকার লিখেছিলেন, “আমি ঘোষণা দিচ্ছি যে আমি একজন হ্যাকার এবং ডেটা ফাঁসের শিকার হয়েছে উবার।”

এরপর কোম্পানির অভ্যন্তরীণ গোপন নথিপত্রের স্ক্রিনশট শেয়ার করেন ওই হ্যাকার। উবার চালকদের পাওনার চেয়ে কম পারিশ্রমিক দেয় বলেও তিনি অভিযোগ তোলেন।

ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, হ্যাকারের স্ল্যাক পোস্টটি এতোটাই আকস্মিক ছিল যে পুরো বিষয়টিকে রসিকতা ভেবেছিলেন উবারের কর্মীরা। পাল্টা রসিকতা করতে ইমোজি দিয়ে কমেন্টও করেছেন কোম্পানির অনেকে।

সাইবার নিরাপত্তা গবেষক কর্বেন লিওর কাছে ওই হ্যাকার দাবি করেছেন, ‘সোশাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের’ মাধ্যমে এক কর্মীর আইডি-পাসওয়ার্ড সংগ্রহ করে উবারের কম্পিউটারে সিস্টেমে অনুপ্রবেশ করেছেন তিনি। আর এভাবেই রাইড-হেইলিং প্ল্যাঠফর্মটির সবচেয়ে গোপন নথিপত্রে প্রবেশাধিকার পেয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক