‘সতীর্থদের ওপর মেসির প্রভাব অবিশ্বাস্য'

আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনির মতে, ব্যক্তি হিসেবেও ভীষণ শ্রদ্ধার পাত্র এই ফুটবল মহাতারকা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Jan 2023, 02:00 PM
Updated : 24 Jan 2023, 02:00 PM

ফুটবলার হিসেবে লিওনেল মেসি এমন এক নাম, প্রতিপক্ষ শিবিরেও যার প্রতি থাকে শ্রদ্ধা। সতীর্থ হিসেবে তিনি কেমন? খুব কাছ থেকে দেখার অভিজ্ঞতায় লিওনেল স্কালোনির কাছে বিষয়টি ব্যাখাতীত। আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ী কোচ বললেন, দলের ওপর এই ফুটবল মহাতারকার মতো আর কাউকে এতটা প্রভাব ফেলতে দেখেননি তিনি।

দীর্ঘ ৩৬ বছর প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে কাতারে বিশ্ব সেরার মুকুট জেতে আর্জেন্টিনা। আসর জুড়ে দলটির উজ্জীবিত পারফরম্যান্স ছিল চোখে পড়ার মতো। আর এতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে সঠিক পথে রাখেন মেসি। আসরের সেরা খেলোয়াড়ের খেতাব জেতা এই ফরোয়ার্ড এক সুতোয় গেঁথে রেখেছিলেন পুরো দলকেই।

নিজের সম্ভাব্য শেষ বিশ্বকাপ বলেই হয়তো বিশ্বকাপ জয়ের জন্য বাড়তি তাড়না অনুভব করেছিলেন। আর এই কিংবদন্তির হাতে বিশ্বকাপের শিরোপা দেখার জন্য তার সতীর্থরা মাঠে ঢেলে দেন তাদের সামর্থ্যের সবটুকু। দুইয়ের দারুণ মেলবন্ধনে রোমাঞ্চকর ফাইনালে টাইব্রেকারে ফ্রান্সকে হারিয়ে শেষ হাসি হাসে স্কালোনির দল।

বিশ্বকাপের আগে ও পরে বিভিন্ন সময়েই মেসির জাতীয় দলের সতীর্থরা তাকে নিয়ে মুগ্ধতার কথা বলেছেন। পিএসজি তারকার সঙ্গে খেলতে পারাটাই কারো কাছে ছিল বড় এক স্বপ্ন। প্রত্যেকের কন্ঠেই ৩৫ বছর বয়সী এই ফুটবলারকে নিয়ে ফুটে উঠেছে তাদের অগাধ শ্রদ্ধার বহিঃপ্রকাশ।

জনপ্রিয় ইউনিভারসো ভালভাদো শো-তে স্কালোনি বিষয়টি তুলে ধরেছেন তার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে। গত সোমবারের অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, খেলোয়াড় ও ব্যক্তি হিসেবেও দলের অন্যদের ওপর অবিশ্বাস্য প্রভাব রয়েছে মেসির।

“সে ফুটবলের একজন নেতা এবং আপনারা তা দেখতে পান। সে যখন কথা বলে, তখন সঠিক কথাই বলে। সতীর্থরা তার দিকে যে দৃষ্টিতে তাকায়, তাকে যেভাবে দেখে, সেখানে থাকে শ্রদ্ধা... এটি ব্যাখ্যা করা খুব কঠিন।”

“সে তার সতীর্থদের মাঝে এমন সব ভাবনা সঞ্চারিত করে যা আগে কখনও দেখিনি, বিষয়টা কেবল একজন ফুটবলার হিসেবে নয়। এটা বলা কঠিন, আমি এ বিষয়ে বলতে পারি। মেসির কথায় সতীর্থদের মধ্যে কী সঞ্চারিত হয়, সেটা অনুভব করতে হলে প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা নিতে হবে।” 

বিশ্বকাপের আগে ২০২১ সালে মেসিরা আর্জেন্টিনাকে এনে দেন কোপা আমেরিকার শিরোপা। জাতীয় দলের হয়ে এটি ছিল সাবেক বার্সেলোনা ফুটবলারের প্রথম শিরোপা।

আর্জেন্টিনার হয়ে সাফল্যময় পথচলায় দলের কয়েকজনের সঙ্গে দারুণ বন্ধুত্ব গড়ে উঠেছে মেসির। এই তালিকায় সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য নাম রদ্রিগো দে পল। মাঠে ও মাঠের বাইরে সবসময় মেসির পাশাপাশি দেখা যায় তাকে, নিয়মিত চলে খুনসুটিও।

স্কালোনি মনে করেন, মেসির সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়তে হলে খুব বেশি কিছু না করে স্রেফ নিজের মত থাকতে হবে। সবার জন্য যে অধিনায়কের দরজা খোলা, মনে করিয়ে দিলেন সেটাও। বললেন, অধিনায়ককে বন্ধুর মতো পেতে বিশেষ কিছু করার দরকার নাই বা তার সঙ্গে কথা বলতেই হবে, বিষয়টা এমনও নয়।

"নিজের মতো থাকলেই হবে। যেমন দে পল তার মতোই থাকে এবং মেসির সঙ্গে তার সম্পর্ক ভালো। কিংবা পারেদেসসহ অন্য তরুণরা তাকে এমন প্রশ্ন করে, যেটা অন্যরা করে না…।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক