৫ গোলের রোমাঞ্চে কোরিয়াকে হারিয়ে আশা বাঁচিয়ে রাখল ঘানা

১২ বছর পর বিশ্বকাপে জয়ের স্বাদ পেল আফ্রিকার দেশটি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Nov 2022, 01:57 PM
Updated : 28 Nov 2022, 01:57 PM

প্রথমার্ধের বিবর্ণতা ঝেড়ে ঘুরে দাঁড়াল দক্ষিণ কোরিয়া। বিরতির পর ১৬৮ সেকেন্ডের মধ্যে দুই গোল শোধ করে তাদের ম্যাচে ফেরালেন চো চিউইয়ি-সাং। কিন্তু এই ঘানা তো হাল ছাড়ার নয়! একটু পরই আবার তারা পুনরুদ্ধার করল লিড। দারুণ এক জয়ে বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে যাওয়ার আশা বাঁচিয়ে রাখল আফ্রিকার দেশটি।

এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে সোমবার ‘এইচ’ গ্রুপের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ৩-২ গোলে জিতেছে ঘানা।

প্রথমার্ধে মোহাম্মেদ সালিসু ও মোহাম্মেদ কুদুসের গোলে এগিয়ে যায় তারা। পরে জয়সূচক গোলটিও করেন কুদুস।

২০১০ সালের পর এই প্রথম বিশ্বকাপে জয়ের স্বাদ পেল ঘানা। এবার পর্তুগালের কাছে ৩-২ গোলে হেরে আসর শুরু করেছিল তারা।

উরুগুয়ের সঙ্গে গোলশূন্য ড্রয়ের পর এবার হেরে খাদের কিনারায় চলে গেল কোরিয়া।

শুরু থেকে বল দখলে এগিয়ে থাকা কোরিয়া প্রথম ১৭ মিনিটে কর্নার পায় ৭টি। একবারও প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের পরীক্ষা নিতে পারেনি তারা।

খেলার ধারার বিপরীতে ২৪তম মিনিটে প্রথম সুযোগ পেয়েই এগিয়ে যায় ঘানা। আন্দ্রে আইয়ুর ফ্রি-কিকে ডি-বক্সে বল ক্লিয়ার করতে পারেনি কোরিয়া। জটলার ভেতর কাছ থেকে শটে বল জালে পাঠান সালিসু।

৩৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে তারা। বাঁ দিক থেকে জর্ডান আইয়ুর ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে চমৎকার হেডে গোলটি করেন কুদুস।

বিরতির আগে গোলের জন্য ছয়টি শট নিয়ে একটিও লক্ষ্যে রাখতে পারেনি কোরিয়া। এই সময়ে ঘানা তিনটি শট নিয়ে দুটিতে সফল হয়।

৫৪তম মিনিটে ভালো একটি সুযোগ পায় কোরিয়া। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের ক্রসে চো চিউইয়ি-সাংয়ের হেড ঝাঁপিয়ে ফেরান গোলরক্ষক লরেন্স আটি-জিগি।

আসরে লক্ষ্যে কোরিয়ার প্রথম প্রচেষ্টা এটিই।

খানিক পর তিন মিনিটে দুই গোল করে ম্যাচে ফেরে তারা। ৫৮তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে লি কাং-ইনের ক্রসে এবার হেডে সাফল্য পান চো।

পরের গোলটিও তিনি করেন দারুণ এক হেডে। বাঁ দিকের বাইলাইনের কাছাকাছি থেকে ক্রস বাড়ান কিম জিন-সু, আর ছয় গজ বক্সে লাফিয়ে হেডে বাকিটা সারেন ২৪ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড।

তাদের সেই স্বস্তি যদিও বেশিক্ষণ থাকেনি। ৬৮তম আবার এগিয়ে যায় ঘানা। বাঁ দিক থেকে সতীর্থের পাসে শট নিতে ব্যর্থ হন ইনাকি উইলিয়ামস। তবে ভুল করেননি কুদুস।

একটু পর দুই মিনিটের মধ্যে কোরিয়ার দুটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে লিড ধরে রাখে ঘানা। লি কাং-ইনের ফ্রি-কিক ঝাঁপিয়ে ফেরান গোলরক্ষক, আর কিম জিন-সুর প্রচেষ্টা গোললাইন থেকে ক্লিয়ার করেন এক ডিফেন্ডার।

বাকি সময়েও ঘানার ওপর চাপ ধরে রেখে মরিয়া চেষ্টা চালায় কোরিয়া। কিম জিন-সুর একটি শট উড়ে যায় ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে। যোগ করা সময়ে চোর শট ঠেকান আটি-জিগি।

অন্তিম মুহূর্তে আরেকটি কর্নার পায় কোরিয়া। তবে সেই সুযোগ তাদের দেননি রেফারি, বাজিয়ে দেন শেষের বাঁশি। এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়ে লাল কার্ড দেখেন কোরিয়ার কোচ পাওলো বেন্তো।

ম্যাচে নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার সবচেয়ে বড় তারকা সন হিউং-মিন।

১ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে আছে পর্তুগাল। ২ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে পিছিয়ে দুইয়ে ঘানা। ১ ম্যাচে উরুগুয়ের পয়েন্ট ১, ২ ম্যাচে কোরিয়ার শূন্য।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক