ভারতের বিপক্ষে গোল পেতে মরিয়া স্বপ্না-কৃষ্ণাও

সাবিনা খাতুন ছাড়া ভারতের জালে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে গোল করার অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের এই দুই ফরোয়ার্ডেরও।

কাঠমান্ডু থেকে মোহাম্মদ জুবায়েরবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Sept 2022, 07:18 PM
Updated : 12 Sept 2022, 07:18 PM

টিম মিটিং আর মাঠের প্রস্তুতির ফাঁকে জটলা পাকিয়ে গল্পের ছলে চলল সাবিনা-কৃষ্ণা-স্বপ্নাদের ছোট-ছোট মিটিং। সবই যেন এক সুতোঁয় গাঁথা! শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে কিভাবে নিজেদের সেরাটা নিংড়ে দেওয়া যায়, গোল পাওয়া যায়-সবখানে একই আলোচনা!

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার গ্রুপ সেরা হওয়ার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ভারত। লক্ষ্য পূরণে জিততেই হবে বাংলাদেশকে।

সাফের পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতের জালে যে কোনো দলেরই গোল পাওয়া মানে যেন সোনার হরিণের দেখা পাওয়া। এ পর্যন্ত সাফে ৬ বার মুখোমুখি হয়ে বাংলাদেশ হেরেছে পাঁচবার, এক ম্যাচ গোলশূন্য ড্র। এই ছয় ম্যাচে বাংলাদেশ গোল হজম করেছে ২১টি, দিয়েছে মাত্র ২টি।

এই দুই গোলের সঙ্গে জুড়ে আছে সাবিনা ও স্বপ্নার নাম। এর বাইরে বর্তমান দলে খেলা কেবল কৃষ্ণার অভিজ্ঞতা আছে ভারতের জালে গোল পাওয়ার।

ভারত ম্যাচ সামনে রেখে এই তিন ফরোয়ার্ডের সঙ্গে কথা হয় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের। তিন জনই জানালেন গোল পাওয়ার লক্ষ্য। চ্যাম্পিয়নদের সমীহ করে অধিনায়ক সাবিনা দিলেন নিজেকে আরও বেশি নিংড়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি।

“একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে, আমাদের মেয়েরা বয়সভিত্তিক পর্যায় থেকে মাত্র এসেছে। তো অভিজ্ঞতার দিক থেকে দেখতে গেলে এই টুর্নামেন্টে যতগুলো দল আছে, তাদের চেয়ে ছোট (পিছিয়ে)। তবে আত্মবিশ্বাস নিয়েই আমি বলতে পারি, এখানে যতগুলো দল আছে, তাদের খেলোয়াড়দের চেয়ে আমাদের মেয়েরা ফিজিক্যালি ফিট।”

“একটা জায়গাতেই ঘাটতি, সেটা হলো অভিজ্ঞতা…অভিজ্ঞতা অনেক সময় ভালো কিছু দেয়, আবার যারা তরুণ, যাদের আত্মবিশ্বাস আছে, ফিটনেস আছে..এটাও অনেক ক্ষেত্রে (ব্যবধান গড়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে) নির্ভর করে । সব মিলিয়ে দেখা যাক, আমরা সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব। ভারত বলেই আরও বেশি এফোর্ট দিব।”

২০১৬ সালে শিলিগুঁড়ির আসরের ফাইনালে ভারতের কাছে ৩-১ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচে লক্ষ্যভেদ করেছিলেন স্বপ্না। এবার পাকিস্তান ম্যাচে এক গোল করা ২১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড মুখিয়ে আছেন ভারতের জালে গোল পেতে।

“২০১৬ সালে ভারতের বিপক্ষে একটি গোল করেছিলাম। এরপর তো অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে। বয়সভিত্তিক পর্যায় থেকে সিনিয়র লেভেলে এসেছি। তো সব মিলিয়ে ভালো কিছু করার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। আমার যে গতি, কাল সর্বশক্তি দিয়ে চেষ্টা করব কাজে লাগানোর।”

২০২০ সালে অলিম্পিক বাছাইয়ে ভারতের বিপক্ষে ৭-১ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচে ব্যবধান কমানো একমাত্র গোলটি করেছিলেন কৃষ্ণা। চলতি সাফে দশরথের আঙিনায় এখনও গোলের আনন্দে ডানা মেলতে পারেননি তিনি। ২১ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড গোলের জন্য তৃষ্ণার্ত চাতকের মতো তাকিয়ে আছেন ভারত ম্যাচের দিকে।

“যেহেতু ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ, আমাদের প্রথম লক্ষ্য থাকবে দলীয়ভাবে ভালো খেলা। যদি ভালো খেলতে পারি, তাহলে অবশ্যই সুযোগ আসবে এবং সে সুযোগগুলো কাজে লাগাতে হবে।”

“আগে অনেক ম্যাচে গোল করেছি, কিন্তু এই টুর্নামেন্টে গোল পাচ্ছি না বা হচ্ছে না। তবে কাল যদি সুযোগ আসে, তাহলে সেরাটা দিয়েই গোল করার চেষ্টা করব। শুধু আমি না, আক্রমণভাগে যারাই খেলবে, তারা সবাই গোলের জন্য মরিয়া থাকবে।”

ভারতের বিপক্ষে জয় খরা কাটানোর জন্য মেয়েদেরকে টিম মিটিংয়ে উদ্বুদ্ধ করার কথা জানালেন টিম ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবুও।

“টিম মিটিংয়ে বলেছি, তোমারা এতদিন পরিশ্রম করেছ, দেশের মানুষ, তোমাদের পরিবার, বন্ধু-বান্ধবরা তোমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। এর ফসল কিন্তু তোমাদের তুলতে হবে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে। মেয়েদের ফুটবলে বাংলাদেশ একটা জায়গায় পৌঁছেছে, কিন্তু যদি তোমরা ভারতকে হারাতে পার, তাহলে তোমরা একটা স্ট্যান্ডার্ডে পৌঁছে যাবে। এটা অনুভব করছে মেয়েরা।”

আরও পড়ুন:

Also Read: বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে সাবিনা-আঞ্জু দ্বৈরথ!

Also Read: ভারতের বিপক্ষে ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ, বললেন বাংলাদেশ কোচ

Also Read: ভারত অধিনায়কের চোখে বাংলাদেশ কঠিন প্রতিপক্ষ

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক