কোর্টেই রাত পার, ক্ষুব্ধ অ্যান্ডি মারে

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের এমন সূচি নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছেন কিংবদন্তি জন ম্যাকেনরোও। 

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Jan 2023, 11:33 AM
Updated : 20 Jan 2023, 11:33 AM

হারের মুখ থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর অসাধারণ গল্প লেখার তৃপ্তি ছিল, কিন্তু রাতভর কোর্টে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে ভীষণ ক্লান্তও হয়ে পড়েন আন্ডি মারে। ক্যারিয়ারে স্মরণীয় এক জয়ের আনন্দ মনে থাকলেও একইসঙ্গে তিতিবিরক্তও ছিলেন ব্রিটিশ তারকা। ম্যাচ শেষে যার ক্ষোভ প্রকাশ করতে তাই দ্বিধা করেননি একটুও। 

মেলবোর্ন পার্কে বৃহস্পতিবার রাতে স্বাগতিক থানাসি কোকিনাকিসের বিপক্ষে মারের ম্যাচটি শুরু হয় রাত ১০টা ২০ মিনিটে। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে প্রথম দুই সেট জয়ের পর তৃতীয় সেটেও এগিয়ে যান র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৫৯ নম্বর খেলোয়াড় থানাসি। 

এরপরই মারের মহাকাব্য রচনার শুরু। প্রতিপক্ষের স্বপ্ন ভেঙে পাঁচ সেটের শ্বাসরুদ্ধকর লড়াইয়ে ৪-৬, ৬-৭ (৪-৭), ৭-৬ (৭-৫), ৬-৩, ৭-৫ গেমে জয় তুলে নেন ৩৫ বছর বয়সী তারকা। শেষ পয়েন্টটি তুলে নিয়ে যখন তিনি জয়ের আনন্দে চিৎকার দিলেন, ঘড়ির কাটায় তখন ৪টা বেজে ৫ মিনিট।

এমন ‘অসময়ে’ ম্যাচের সময় রাখায় তিনি যে ভীষণ বিরক্ত, তা রাখঢাকের চেষ্টাও করেননি মারে। টুর্নামেন্ট আয়োজকদের প্রতি কড়া সমালোচনায় বলেন, তাদের এমন আচরণ খেলোয়াড় থেকে শুরু করে স্টেডিয়ামের সবার প্রতি ‘অসম্মানজনক’। 

“এটা রসিকতা, রসিকতা। আপনারাও তা ভালোমতোই জানেন।”

“এটা আপনাদের প্রতি অসম্মানজনক, বল-বয়দের প্রতি অসম্মানজনক, খেলোয়াড়দের প্রতি অসম্মানজনক এবং আমাদের এমনকি ওয়াশরুমে যাওয়ারও অনুমতি নেই। বিরক্তিকর।”

বছরের প্রথম এই গ্র্যান্ড স্ল্যামে সূচিই এমনভাবে করা যে, প্রায় সময়ই ম্যাচ মাঝরাত পেরিয়ে যায়। এ নিয়ে ক্ষোভ ঝেড়েছেন সাবেক গ্র্যান্ড স্ল্যাম চ্যাম্পিয়ন জন ম্যাকেনরো। সাতটি মেজর জয়ী তারকা ইউরোস্পোর্টকে বলেন, আয়োজকদের নিয়ম করা উচিত যাতে এমনটা আর না হয়। 

“আমি হতবাক, বিশ্বাসই হচ্ছে না যে তারা ওই সময়ও খেলছে। এই পর্যায়ে ভোর ৪টা থেকে সাড়ে ৪টায় ম্যাচ চলছে! পাগলামি।” 

টুর্নামেন্ট পরিচালক ক্রেইগ টাইলি যদিও বলেছেন, তারা নিরুপায়। সূচি নিয়ে বেশি কথা বলারও তেমন কিছু দেখছেন না তিনি। 

“১৪ দিনের মধ্যে আমাদের সব ম্যাচ খেলাতে হবে, তাই এছাড়া খুব বেশি সুযোগও নেই।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক