মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা আর ঘোষণা পাঠকারী এক নয়: ওবায়দুল কাদের

স্বাধীনতা বিরোধীরা এ দেশকে আফগানিস্তান বানাতে চায় বলে মন্তব্য করেন তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ। 

দিনাজপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Nov 2022, 01:49 PM
Updated : 28 Nov 2022, 01:49 PM

মুক্তিযুদ্ধের ঘোষক নিয়ে বিএনপির মিথ্যাচারের অভিযোগ তুলে তাদের সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

সোমবার দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, “মুক্তিযুদ্ধের ‘ঘোষণা’ আর ‘ঘোষণা পাঠকারী’ এক জিনিস নয়। ঘোষণা পাঠকারী কখনও ইতিহাসের নায়ক হতে পারে না।” 

যুদ্ধের কারণে স্বল্প আয়ের মানুষ কষ্টে আছে উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সব সময় মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টা ঘুমান। তিনি সব সময় জনগণের জন্য কাজ করেন। দেশের জনগণ কীভাবে ভালো থাকবে এ নিয়েই তিনি চিন্তা করেন এবং বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদারতার কারনেই দুর্নীতির মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি খালেদা জিয়াকে নির্বাহী ক্ষমতায় কারাগারের বাইরে রেখেছেন বলে স্মরণ করিয়ে দেন ওবায়দুল কাদের।

এ সময় তিনি  সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশ নিয়েও কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান মুত্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্থান। এখানে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী তথা শত্রু বাহিনী আত্মসমর্থন করেছিল। এই ঐতিহাসিক মাঠ বিএনপির পছন্দ নয় কেন জনগণ জানতে চায়।

১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনের কথাও তিনি স্মরণ করিয়ে দেন। 

“১৫ ফেব্রুয়ারির মত নির্বাচন আর হবে না। সুষ্ঠু ভোট হবে। শেখ হাসিনা নির্বাচনের সময় রুটিন দায়িত্ব পালন করবেন। সে সময় একটা নিরপেক্ষ ভোট হবে।”

গোর-এ শহীদ ময়দানে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন দলের জেলা সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।   

সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম ও সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন। প্রধান বক্তা ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ।   

সম্মেলনে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ এই দেশকে রক্ষা করতে সকলকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান। 

“স্বাধীনতা বিরোধীরা গভীর ষড়যন্ত্র শুরু করেছে; তারা এ দেশকে আফগানিস্তান বানাতে চায়,” বলেন হাছান মাহমুদ।  

সমাবেশে সংসদ সদস্য শাহাজাহান খান, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক, নৌ-পরিবহন মন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালু্র রহিম, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বক্তব্য রাখেন। 

নতুন জেলা কমিটি ঘোষণা 

সম্মেলন শেষে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কয়েকটি পদের নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন।

বর্তমান সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ফিজারকে পুরনায় সভাপতি এবং বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি আলতাফুজ্জামান মিতাকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। 

এ ছাড়া সহ-সভাপতি আজিজুল ইমাম চৌধুরী ও তৌহিদুল ইসলাম সরকার এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল ও শাহ ইয়াজদানী মার্শালের নাম ঘোষণা করা হয়। 

৭১ সদস্যের কমিটির অন্যান্য পদে পরবর্তীতে মনোনীত করা হবে বলে সম্মেলনে জানানো হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক