কক্সবাজারে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত, হামলায় আহত পুলিশ

আটক ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টাকালে একদল লোকের হামলায় পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছেন।

কক্সবাজার প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Nov 2022, 03:36 PM
Updated : 13 Nov 2022, 03:36 PM

কক্সবাজার শহরে 'পূর্ব শত্রুতার জেরে' প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। 

পরে আটক ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টাকালে একদল লোকের হামলায় পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছেন বলে সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. নাজমুল হুদা জানান। 

রোববার বিকাল সাড়ে ৪টায় কক্সবাজার শহরের কলাতলী চন্দ্রিমা মাঠ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। 

নিহত মোহাম্মদ ইউসুফ (২০) কলাতলী চন্দ্রিমা মাঠ এলাকার আব্দুল জব্বারের ছেলে। তিনি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ফটোগ্রাফি করে জীবিকা নির্বাহ করেন। 

আটক মোহাম্মদ সোহেল (২৫) একই এলাকার মোহাম্মদ বাবুলের ছেলে। 

আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন আমির হোসেন রানা (২৫) ও মোহাম্মদ সাইদুল (২৬)। তারা কক্সবাজার জেলা পুলিশ লাইন্সে কর্মরত আছেন। 

স্থানীয়দের বরাতে পরিদর্শক নাজমুল হুদা বলেন, কয়েকদিন আগে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মোহাম্মদ ইউসুফের সঙ্গে একই এলাকার মোহাম্মদ সোহেল নামের এক যুবকের মধ্যে তর্কাতর্কির ঘটনা ঘটে। এ সময় তারা হাতাহাতিতেও জড়িয়ে পড়েন। পরে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মধ্যস্থতায় বিরোধের মীমাংসা হয়।

"রোববার বিকালে মোহাম্মদ ইউসুফ বাড়ি ফিরছিলেন। পথে কলাতলী চন্দিমা মাঠ এলাকায় সোহেল ও রুবেলের নেতৃত্ব একদল লোক হামলা চালায়। তাদের উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে ইউসুফ আহত হন।” 

স্থানীয়রা উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পরিদর্শক নাজমুল হুদা বলেন, হামলা করে ঘটনাস্থল থেকে পালানোর সময় স্থানীয়রা মোহাম্মদ সোহেলকে ধরে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে আটক করে। 

“এ সময় একদল লোক পুলিশের কাছ থেকে আটক ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালালে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। এতে পুলিশের দুই সদস্য আহত হয়েছেন।” 

আহত পুলিশ সদস্যদের কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানান নাজমুল হুদা। 

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক