ভ্যান চালককে হত্যার দায়ে একজনের প্রাণদণ্ড, ৩ জনের যাবজ্জীবন

পিরোজপুরে ২০১৭ সালের ১৬ জুলাই আসামিরা চালককে হত্যা করে তার ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যান বলে জানান এপিপি।

পিরোজপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Jan 2024, 12:24 PM
Updated : 30 Jan 2024, 12:24 PM

পিরোজপুরের কাউখালি উপজেলায় চালককে হত্যা করে ভ্যান চুরির মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড এবং তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. মোক্তাগীর আলম তিন আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন বলে রাষ্ট্রপক্ষের সহকারী কৌঁসুলি (এপিপি) জহুরুল ইসলাম জানান।

মৃত্যুদণ্ড পাওয়া ছাইদুল ইসলাম মোল্লা ওরফে সাইফুল (২৬) নাজিরপুর উপজেলার বুইচাকাঠি গ্রামের আকরাম মোল্লার ছেলে।

যাবজ্জীবন পাওয়ারা হলেন- কাউখালি উপজেলার চিরাপাড়া গ্রামের মনরঞ্জন দেবনাথের ছেলে সঞ্জয় চন্দ্র দেবনাথ (৪৯), একই গ্রামের সুনীলচন্দ্র দাসের ছেলে পল্টু কুমার দাস পল্টন (২৮) এবং ডুমজুরি গ্রামের শাহজাহান আলী শেখের ছেলে শেখ মাইনুল হাসান জামাল (২৭)। তাদের মধ্যে পল্টু কুমার পলাতক আছেন।

মামলার বরাতে এপিপি জহুরুল ইসলাম জানান, ২০১৭ সালের ১৬ জুলাই উপজেলার চিরাপাড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আ. ছালেক সরদারের বাড়ির পেছনে একই গ্রামের রবীন্দ্রনাথ মণ্ডলের পানের বরজের পাশ থেকে অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মরদেহের শরীরে ধারাল অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। এ ঘটনায় কাউখালি থানার এসআই দীপক কুমার বিশ্বাস বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেন।

পরে ২০১৮ সালের ২৫ জানুয়ারি এসআই জলিল আহম্মেদ চারজনকে আসামি করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। প্রতিবেদনে অজ্ঞাত ওই লাশের পরিচয় ও হত্যার মূল কারণ উল্লেখ করা হয়।

এপিপি বলেন, অজ্ঞাত ওই মরদেহ মিজান শেখ মানিক (১৯) নামে এক ব্যক্তির। তিনি পেশায় একজন ব্যাটারিচালিত ভ্যানচালক ছিলেন। ঘটনার দুই দিন আগে ২০১৭ সালের ১৪ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে আসামিরা মিজানকে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে হত্যা করে তার ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যান।

২১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এক আসামিকে মৃত্যুদণ্ড এবং তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে জানান এপিপি জহুরুল।