হবিগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলার মামলায় গ্রেপ্তার ১

মামলা দায়েরের পর চার আসামির মধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Sept 2022, 12:05 PM
Updated : 12 Sept 2022, 12:05 PM

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বাড়িতে সাংবাদিকদের ওপর ‘অবৈধ দখলদারদের’ হামলার মামলায় এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার বিকেল ৪টায় উপজেলার চাঁনপাড়া এলাকা থেকে ওই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে বানিয়াচং থানার ওসি অজয় চন্দ্র দেব জানান।

তিনি আরও বলেন, আসামিকে তার শ্বশুরবাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি এখন থানা হেফাজতে আছেন।

গ্রেপ্তার মো. ওয়ালিদ (২৭) উপজেলার বিদ্যাভূষণ পাড়ার (চাঁনপাড়া) ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাসের বাড়ির ‘দখলদার’ আব্দুল ওয়াহেদের ছেলে।

রোববার দুপুরের পর সাইকেলে বিশ্বভ্রমণকারী ও ভ্রমণকাহিনী লেখক বানিয়াচং উপজেলার ২ নম্বর ইউনিয়নে রামনাথ বিশ্বাসের বাড়ি দখলের খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন একদল সাংবাদিক।

হামলার শিকারদের মধ্যে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের স্পেশাল অ্যাসাইনমেন্ট এডিটর রাজীব নূর ছাড়াও রয়েছেন বানিয়াচং প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও কালের কণ্ঠের বানিয়াচং প্রতিনিধি মোশাহেদ মিয়া, হবিগঞ্জ সমাচার পত্রিকার বানিয়াচং প্রতিনিধি তৌহিদ মিয়া এবং দেশসেবা পত্রিকার বানিয়াচং প্রতিনিধি আলমগীর রেজা।

এ ঘটনায় রোববার রাতেই সাংবাদিক তৌহিদ মিয়া বাদী হয়ে ‘দখলদার’ আব্দুল ওয়াহেদ, তার ছেলে ওয়ায়েছ, ওয়ালিদ ও ওয়াসিফের বিরুদ্ধে বানিয়াচং থানায় মামলা করেন।

সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সোমবার দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষোভ, প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছেন গণমাধ্যমকর্মীরা। এ সময় তারা হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করেন।

হামলা প্রসঙ্গে সাংবাদিক রাজীব নূর বলেন, “ভূ-পর্যটক রামনাথ বিশ্বাস একজন খ্যাতিনামা পর্যটক। তিনি বাইসাইকেল দিয়ে বিশ্ব ভ্রমণ করেছেন। এ ছাড়া তিনি ভ্রমণ নিয়ে অনেক লেখাও লিখেছেন। তার বাড়ি হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার বিদ্যাভূষণ পাড়ায়। আব্দুল ওয়াহেদ বাড়িটি দখল করে রেখেছেন। রোববার বিকেলে আমি স্থানীয় তিনজন সাংবাদিককে নিয়ে বাড়িতে গেলে দখলদার ওয়াহিদ মিয়া ও তার ছেলেরা লাঠিসোটা নিয়ে আমাদের ওপর হামলা করেন। এ সময় আমার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।”

বানিয়াচং প্রেসক্লাবের সভাপতি মোশাহিদ মিয়া বলেন, ‘আমরা বাড়িতে যাওয়া মাত্রই উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। এক পর্যায়ে লাঠিসোটা নিয়ে ওয়াহিদ ও তার ছেলেরা হামলা চালায়। এ সময় একটি বড় ইট নিয়ে আমার সহকর্মী আলমগীরের মাথায় আগাত করতে গেলে কোনো রকমে আমি তাকে সেইভ করি। না হলে সেখানে বড় ধরণের অঘটন ঘটতে পারত।”

এর আগে গত ৬ সেপ্টেম্বর ওই বাড়িতে গিয়ে হামলার শিকার হন ‘এখন টিভি’ ও ‘নিউজবাংলা’র হবিগঞ্জ প্রতিনিধি কাজল সরকার এবং ‘দেশটিভি’র প্রতিনিধি আমীর হামজাসহ চার সাংবাদিক।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক