ধুনটে নাশকতার মামলায় বিএনপির ৪৬ জন, গ্রেপ্তার ২

গ্রেপ্তারদের আদালতে হাজির করার পর কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়।  

বগুড়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Nov 2022, 12:34 PM
Updated : 24 Nov 2022, 12:34 PM

বগুড়ার ধুনটে নাশকতার অভিযোগে বিএনপির ৪৬ জনের নামে মামলা করেছে পুলিশ; পরে ওই মামলায় দুইজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। 

ধুনট থানার এসআই আসাদুজ্জামান জানান, এসআই রুহুল আমিন খান বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার থানায় মামলা করেছেন। দুপুরে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।   

গ্রেপ্তাররা হলেন ধুনট উপজেলার অলোয়া গ্রামের প্রয়াত সোলায়মান আলীর ছেলে মথুরাপুর ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক রেজাউল করিম (৪৪) ও নলডাঙ্গা গ্রামের সোলায়মান হোসেনের ছেলে উপজেলা যুবদলের আহবায়ক উজ্বল হোসেন (৪০)। 

এসআই আসাদুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার ধুনট-শেরপুর সড়কের উল্লাপাড়া পাকা রাস্তার উপর অনেক লোক লাঠিসোটা নিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে ককটেল [হাতবোমা] বিস্ফোরণ ঘটনায়। সংবাদ পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হলেও অন্যরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। 

এ সময় সেখান থেকে অবিস্ফোরিত দুটি তাজা হাতবোমা উদ্ধার করা হয় বলে জানান তিনি।  

তিনি আরও জানান, এই ঘটনায় ধুনট উপজেলা বিএনপির আহবায়ক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল আলম মামুনসহ বিএনপি-যুবদল ও ছাত্রদলের ৪৬ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। 

মামলায় আসামিদের মধ্যে ধুনট উপজেলা বিএনপির সদস্য হায়দার আলী হিন্দোল, সাবেক পৌর মেয়র আলিমুদ্দিন হারুন মন্ডল, সাবেক পৌর প্রশাসক আকতার আলম সেলিম ও আবুল মনছুর পাশার নামও রয়েছে। 

এর আগে আটক দুইজনকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে বলে এসআই আসাদুজ্জামান জানান।  

উপজেলা বিএনপির আহবায়ক তৌহিদুল আলম বলেন, আগামী ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে এবং ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় বিএনপির মহাসমাবেশ রয়েছে। তাই বিএনপির সমাবেশকে বানচাল করতে সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে। 

ধুনট থানার ওসি রবিউল ইসলাম বলেন, নাশকতা সৃষ্টির অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক