ননস্টিকের পাত্রে ‘স্ক্র্যাচ’ বাড়াতে পারে স্বাস্থ্যঝুঁকি

ননস্টিকের পাত্রে দাগ পড়লে সেটা বদলে ফেলাই ভালো।

লাইফস্টাইল ডেস্ক
Published : 10 Nov 2022, 06:52 AM
Updated : 10 Nov 2022, 06:52 AM

ননস্টিকের পাত্রে রান্না করা বা ধোয়ামোছার সময় ঘষা লেগে দাগ পড়তেই পারে।

এতে আমরা কেবল পাত্রের আস্তরণের ক্ষতিটা দেখি। তবে এরফলে দেহের যে ক্ষতি হয় তা অনেকেরই ধারণার অতীত।

সম্প্রতি ‘সায়েন্স অব দ্যা টোটাল এনভাইরোনমেন্ট’য়ে প্রকাশিত অস্ট্রেলিয়ার ‘উইনিভার্সিটি অফ নিউ ক্যাসেল’ ও ‘কলেজ অফ সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ফাইন্ডার্স ইউনিভার্সিটি’ করা এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, স্ক্র্যাচ পড়া বা ব্যবহৃত ‘টেফলন ননস্টিক প্যান’য়ের প্রতিটি স্ক্র্যাচ বা ফাটল বা দাগ হাজার হাজার প্লাস্টিকের কণা ছেড়ে দিতে পারে।

যদিও এই প্লাস্টিকের কণাগুলোর সংস্পর্শে আসার ফলে হওয়া স্বাস্থ্যঝুঁকি নিয়ে আরও গবেষণা করা দরকার বলে মন্তব্য করছেন গবেষকরা।

পছন্দের প্যান বা পাত্রে রান্না করা কী ধরনের স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়াতে পারে তা বোঝার জন্য এই গবেষণা করা হয়।

যারা টেফলন ননস্টিক পাত্র বা প্যান দিয়ে রান্না করেন তাদের এই সরঞ্জামগুলো থেকে প্রলেপ ছিঁড়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতা আছে। ‘টেফলন’য়ের প্রলেপ রান্নার পাত্রে ব্যবহারের কারণ হল, খাবার প্যানে লেগে থাকার সম্ভাবনা কমে।

গবেষকরা ‘টেফলন’ ব্যবহার করার সম্ভাব্য বিপদ সম্পর্কে আরও জানতে চেয়েছিলেন। একারণেই যখন কোCBF স্ক্র্যাচ বা দাগ পড়ার কোনো চিহ্ন থাকে তখন তা ব্যবহারে সাবধান হতে হবে।

গবেষকদের মতে, ‘টেফলন’ প্লাস্টিকের কণা এবং ‘মাইক্রো-প্লাস্টিকগুলো’ অন্যান্য ধরনের প্লাস্টিকের তুলনায় শনাক্ত করা কঠিন।

তাই গবেষকরা ‘রামন ইমেজিং’ নামে পরিচিত এক প্রযুক্তির আশ্রয় নেন। যে পদ্ধতিতে কোনো বস্তুর বিশদ চিত্র তৈরি করতে পারে।

এই চিত্রের মধ্যে তারা দেখেছেন, স্ক্র্যাচ পড়া অংশটি ক্ষতিসাধন করে এবং টেফলন’য়ের বিভিন্ন স্তর থেকে নয় হাজারের বেশি প্লাস্টিক কণা নিঃসৃত হতে পারে। 

এই গবেষণার সঙ্গে জড়িত গবেষকদের মতে, এই ফলাফলগুলো উদ্বেগজনক হতে পারে। কারণ টেফলন’কে এক হিসেবে ‘পলিফ্লুয়োরিনেইটেড পদার্থ’ পরিবারে বিবেচনা করা হয়। যা এক ধরনের রাসায়নিক এবং খাওয়ার সময় ক্ষতিকারক হওয়ার সম্ভাবনা রাখে।

গবেষকদের প্রধান মধ্যে নিউক্যাসল ইউনিভার্সিটির ডা. চেং বলেন, “পিএফএএস’ একটি বড় উদ্বেগের বিষয়। খাবারে এই ‘টেফলন মাইক্রো পার্টিকেল’গুলো স্বাস্থ্যের জন্য উদ্বেগজনক হতে পারে। তাই তদন্ত করা দরকার। কারণ এই উদীয়মান দূষকগুলো সম্পর্কে খুব একটা জানা যায়নি।”

পিএফএএস’য়ের ক্ষতিকারক দিক

যুক্তরাষ্ট্রের ‘সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)’য়ের বরাত দিয়ে ইটদিস ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়- প্যান বা পাত্র, জামাকাপড়, আসবাব ও খাবারের মোড়কের আবরণ তৈরি করতে ‘পিএফএএস’ ব্যবহার করা হয়। যা তাপ, পানি ও গ্রিজের মতো জিনিসকে প্রতিরোধ করে।

দুর্ভাগ্যক্রমে, টেফলন প্যানে দাগ পড়ার মানে হল এই রাসায়নিকগুলোর সংস্পর্শে আসা।

‘সিডিসি’ জোর দেয় যে, পিএফএস- এর সংস্পর্শে যাওয়ার কারণে হওয়া ক্ষতি সম্পর্কে এখনও যথেষ্ট চূড়ান্ত গবেষণা করা হয়নি।

তবে বিভিন্ন গবেষণায় দেখা যায়- গর্ভবতীদের রক্তচাপ ও কোলেস্টেরল বৃদ্ধি, যকৃতে পরিবর্তন এমনকি ভ্যাক্সিনের প্রতিক্রিয়া হ্রাস করার মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারে।

তারপরও নিশ্চিতভাবে টেফলনের দাগ স্বাস্থ্যকে প্রভাবিত করতে পারে বলে কোনো উপসংহার টানা যায়নি।

তবে ফাইন্ডার ইউনিভার্সিটি ও নিউক্যাসেল ইউনিভার্সিটির করা গবেষণায়গুলো দৈনন্দিন ভিত্তিতে যে রাসায়নিকগুলো সংস্পর্শে আসতে পারে সে সম্পর্কে উদ্বেগ বাড়ায়। 

এক্ষেত্রে, টেফলনের পাত্রগুলো পরিবর্তন করে ঢালাই লোহার পাত্র ব্যবহার করা উপকারী।

আরও পড়ুন

Also Read: মাটির পাত্রে রান্নার উপকারিতা

Also Read: চীনামাটির পাত্র নতুনের মতো রাখতে

Also Read: রান্নার পাত্র থেকে দাগ তুলতে

Also Read: দীর্ঘক্ষণ পাত্রে পানি থাকলে যা হয়

Also Read: অ্যালুমিনিয়ামের পাত্রে রান্নায় ঝুঁকি

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক