ঘরের যেসব জিনিস সচরাচর পরিষ্কার করা হয় না

এসব জিনিস নিয়মিত পরিষ্কার না করলে ঘরে ধুলাবালি আর ময়লা জমাচ্ছেন অজান্তেই।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 Jan 2024, 01:32 PM
Updated : 28 Jan 2024, 01:32 PM

সময়ের সাথে অনেক কিছুই পরিষ্কার করা হলেও কিছু জিনিস হয়ত ধোয়ার কথা মনে থাকে না।

অথবা অনেকদিন পরপর ধোয়া হয়।

যে কারণে ঘর পরিষ্কার করলেও আধোয়া সেসব জিনিস থেকে ঘরের সুস্থ পরিবেশ বজায় নাও থাকতে পারে।

রিয়েলসিম্পল ডটকমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই বিষয়ে জীবনযাপন বিষয়ক মার্কিন লেখক অ্যামান্ডা লরেন এমন কয়েকটি জিনিসের নাম উল্লেখ করেন। যেমন- ঘর সাজানোর বালিশ, পর্দা, ম্যাট্রেস কভার ইত্যদি।

ম্যাট্র্যাস কভার

প্রতি সপ্তাহে বিছানার চাদর পরিষ্কার করা হলেও অনেকেই ম্যাট্র্যাস কাভার বা জাজিমের ওপরে থাকা কাভার পরিষ্কার করেন না।

বিছানায় ব্যবহৃত অন্যান্য জিনিসপত্রের মতো এটাও নিয়মিত বা মাসে কমপক্ষে একবার পরিষ্কার করা উচিত।

ঘরে পোষা প্রাণী থাকলে আরও ঘন ঘন ধোয়ার দরকার পড়ে।

পাপোশ

ঘরে থাকা পাপোশ বা পা মোছার জন্য মেঝের ম্যাট নিয়মিত ঝাড়া ও ধোয়া উচিত। এগুলো সাধারণত নরম তুলাবহুল কাপড়ের হয়ে থাকে। ফলে সহজেই ধুলা ও ময়লা আটকে যায়।

তাই সপ্তাহে অন্তত একবার পরিষ্কার করা এবং প্রতিদিন ঘর ঝাড়ু দেওয়ার সময় সেগুলো ঝেড়ে নেওয়া উচিত।

আসবাবপত্রের কাপড়ের ঢাকনা

বসার ঘরের সোফা, পাশ বালিশ ইত্যাদিতে কভার ব্যবহার করা হলে সেগুলো নিয়মিত ধুয়ে পরিষ্কার করতে হবে।

লস অ্যাঞ্জেলেস ভিত্তিক কাপড় ধোয়ার প্রতিষ্ঠান ‘লন্ড্রিলিশিয়াস’ এর প্রতিষ্ঠাতা ম্যারিয়েক ভ্যান ডের গ্রাফ একই প্রতিবেদনে বলেন, “ঘরের সোফায় বা কাউচে প্রতিদিন কত লোক বসে, সেটার ওপর নির্ভর করবে কত দিন পর পর ধুতে হবে। বেশি ব্যবহার হলে অবশ্যই সপ্তাহে একবার ধোয়া জরুরি।”

ঘর সাজানোর বালিশ

ঘরে আরামদায়ক ভাব ও সৌন্দর্য বাড়াতে সাজানোর ছোট বালিশগুলো ময়লা হলে ঘরের ভাবমূর্তিও নষ্ট হয়।

সোফা, বসার বা শোবার ঘরে রাখা সাজানো বালিশগুলো নিয়মিত পরিষ্কার করা উচিত।

ভ্যান ডের গ্রাফ বলেন, “এগুলোও পরিষ্কার করতে হবে। এগুলোতে বার বার হাতের স্পর্শ লাগে। ঘরে পোষা প্রাণী থাকলে এগুলো আরও বেশি ময়লা হয়। তাই নিয়মিত এই বালিশগুলো পরিষ্কার করতে উচিত।”

পর্দা

পর্দাতে অনেক বেশি ময়লা, ধুলাবালি, জীবাণূ ও চুল আটকে যায়।

ভ্যান ডের গ্রাফ বলেন, “সব ঘরের পর্দা বছরে অন্তত একবার ধোয়া উচিত। তবে যেসব ঘরে লোকজনের চলাচল বেশি যেমন- বসার ঘরের পর্দা বছরে কমপক্ষে চার বার ধোয়া প্রয়োজন।”

পর্দার ধোয়ার আগে দেখে নিতে হবে হাতে ধোয়া যাবে কিনা। অন্যত্থায় মেশিনে পরিষ্কার করতে হবে।

কমফোর্টারস

কভার ছাড়া নিয়মিত কমফোর্টার ব্যবহার করলে এক সপ্তাহ পর পর ধোয়া উচিত। আর কভার ব্যবহার করলে প্রতি তিন মাস পর পর ধোয়ার পরামর্শ দেন, ভ্যান ডের গ্রাফ।

যদি কমফোর্টারে কোনো দাগ বা দুর্গন্ধ হয় তাহলে বুঝতে হবে সেটা যথেষ্ট পরিষ্কার হয়নি।

গরম পাত্র ধরার কাপড় ও টেবিলের ম্যাট

গরম খাবার পাত্র ধরার জন্য কাপড়ের তৈরি ‘লুসনি’ বা ‘হোল্ডার’ নিয়মিত পরিষ্কার রাখা উচিত। খাবার টেবিলের ম্যাট’য়ের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম প্রযোজ্য।

ভ্যান ডের গ্রাফ বলেন, “এগুলো সপ্তাহে একবার অথবা ময়লা হলে ধুতে হবে। এসবে অনেক বেশি ময়লা, জীবাণু ও ব্যাক্টেরিয়া বাসা বাঁধে।”

এক্ষেত্রে ভেতর-বাইরে বা দুপাশই ধুতে হবে।

ছবি: পেক্সেলস ডটকম।

আরও পড়ুন

Also Read: পরিষ্কার থাকার অভ্যাসগুলোও হতে পারে নোংরা

Also Read: ছয় মাস পর পর যা ‘ড্রাই ক্লিন’ করা প্রয়োজন

Also Read: ঘরে অদ্ভূত গন্ধ? বরং পরখ করুন কয়েকটি জায়গা