ই-ভিসা শিগগিরই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ই-গেইটে ১৮ সেকেন্ডে ইমিগ্রেশন সম্পন্ন হয়।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Nov 2022, 04:11 PM
Updated : 15 Nov 2022, 04:11 PM

বাংলাদেশ শিগগিরই ই-ভিসার যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান।

মঙ্গলবার চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ই-গেইট উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, “আপনারা জেনে খুশি হবেন আমরা ই ভিসাও চালু করতে যাচ্ছি। খুব অল্প সময়ের মধ্যে ই-ভিসা চালু করব। এ সেক্টরকে আমরা পুরোপুরি ডিজিটালাইজড করতে যাচ্ছি।” 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। 

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, "প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় আমরা এমআরপি করেছিলাম। এরপর ই-পাসপোর্ট শুরু করি। এখন প্রতিদিন ২০ হাজার ই-পাসপোর্ট প্রিন্ট করছি। ইতিমধ্যে ঢাকায় ২৬টি ই-গেইট চালু করেছি। আজ চট্টগ্রামে ৬টি ই-গেইট উদ্বোধন করছি।" 

প্রধানমন্ত্রী তার অঙ্গীকার রক্ষা করে চলেছেন মন্তব্য করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “তিনি (শেখ হাসিনা) বলেছিলেন- ক্ষমতায় এলে সবকিছু ডিজিটাল করবেন। দেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে। 

“ই-গেইট সেবা, দেশি ও বিদেশিরা সহজে এ সেবা নিতে পারবেন। যাদের ই-পাসপোর্ট আছে তারা সহজে পার হয়ে যাবেন। চট্টগ্রামবাসীর জন্য এ উপহার।"

Also Read: শাহজালালে চালু হল ই- গেইট

অনুষ্ঠানে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. নূরুল আনোয়ার বলেন, “ইমিগ্রেশন প্রক্রিয়া এর মাধ্যমে ডিজিটাল হবে। শুধু ভিসা যাচাই প্রক্রিয়া কিছুটা ম্যানুয়াল থাকছে।"

ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ক্রিয় পাসপোর্ট ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের আওতায় ই-গেইট স্থাপনের কাজ চলছে। ঢাকায় এখন পর্যন্ত ৫৭ হাজার যাত্রী এ সেবা নিয়েছে বলে জানান তিনি। 

এসব গেইটে ই-পাসপোর্ট যাচাই, পাসপোর্টে থাকা বায়োমেট্রিক ও ব্যক্তিগত তথ্য যাচাই এবং সামগ্রিক ইমিগ্রেশন প্রক্রিয়া সমন্বিতভাবে করা সম্ভব। একজন ই-পাসপোর্টধারী কারো সহযোগিতা ছাড়া মাত্র ১৮ সেকেন্ডে ডকুমেন্ট যাচাই করে ইমিগ্রেশন শেষ করতে পারেন।

যাত্রী ই-পাসপোর্টের প্রথম পাতা স্ক্যানিং মেশিনের উপর রাখার পর প্রথম গেইটটি খোলে। স্ক্যানিং মেশিনের শনাক্তকরণ ক্যামেরার মাধ্যমে ছবি ধারণ এবং এরপর পরিচয় নিশ্চিত হলে বহির্গমন গেইটটিও খুলে যাবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক