চট্টগ্রামে এবার ঝরনা খালের পাড়ে হেলে পড়ল চারতলা ভবন

তিন ভবন থেকে সরানো হয়েছে ২০টি পরিবারকে।

চট্টগ্রাম ব্যুরোবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Nov 2023, 03:02 PM
Updated : 25 Nov 2023, 03:02 PM

চট্টগ্রাম নগরীর রৌফাবাদে শীতল ঝরনা খাল লাগোয়া একটি চারতলা ভবন হেলে গেছে।

শনিবার বিকালে বায়েজিদ বোস্তামী থানার তৈয়বিয়া হাউজিং সোসাইটি এলাকায় খোরশেদ ম্যানসন নামে ওই ভবনটি হেলে পড়ে।

ঝুঁকি বিবেচনায় ভবনটি থেকে সাতটি পরিবারকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে; পাশের পাঁচতলা ও দুইতলা দুটি ভবন থেকে সরানো হয়েছে আরও ১৩ পরিবারকে।

বায়েজিদ বোস্তামী ফায়ার স্টেশনের কর্মকর্তা কামরুজ্জামান জানান, ভবনের পাশে শীতল ঝরনা খালে সিডিএ’র জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের আওতায় খনন কাজ চলছে। এ কারণে চার তলা ভবনটির একটি অংশ হেলে গেছে।

৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাফিকুল ইসলাম জানান, ভবনটি শীতল ঝরনা খালের কাছে।

“ভবনের ওই অংশে গাইড ওয়াল নেই। যার কারণে খাল খননের সময় সেটি হেলে পড়ে। সেখানে বসবাসকারীদের সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সিডিএ’র লোকজন আসলে ভবনের বিষয়ে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে।”

জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের পূর্ত কাজের প্রকল্প পরিচালক সেনাবাহিনীর ৩৪ কনস্ট্রাকশন ৩৪ ইঞ্জিনিয়ারিং ব্রিগেডের কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাহ আলী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বলেন, “শীতল ঝরনা খালে প্রকল্পের কাজ চলছে। সেখানে যে ভবনটি হেলে পড়েছে সেটির, পিছনের দেয়াল খালের জিরো লাইনের উপর।

“খালের কাজ শুরুর আগে ভবন মালিককে আমরা বলেছি ওয়ার্কিং স্পেস দিতে। তিনি রাজি হননি। বরং তিনি লিখিত দিয়েছেন কাজের জন্য তিনি জমি ছাড়বেন না। ভবনের কিছু হলে দায়িত্ব তার।”

ভবন মালিকের কাছ থেকে লিখিত পাওয়ার পর খালের মাটি কাটার কাজ শুরু করা হয় জানিয়ে লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাহ আলী বলেন, “এর পরও আমরা খালের অংশে শিট পাইল দিয়েছি। তারপর মাটি কাটা কেবল শুরু করা হয়েছে। তখন ওই ভবনের ‍দুটি কলাম ফেইল করেছে। এতে ভবনটি হেলে গেছে।

“ভবনটির ফাউন্ডেশন (ভিত্তি) খালের তলা থেকে অনেক উপরে হওয়ায় এবং ফাউন্ডেশন দুর্বল হওয়ায় সেটি হেলে গেছে। এক্ষেত্রে আমাদের কিছু করার নেই।”

ভবনটির মালিক খোরশেদ জানিয়েছেন, খালের কাজ শুরুর আগে তিনি লিখিত দিয়েছেন। খালের মাটি কাটার কাজ শুরুর পর ভবনটি হেলে পড়েছে।

নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে মেগা প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। এর আগে গত ১৮ জানুয়ারি নগরীর ষোলশহর এলাকায় একটি চারতলা ভবন হেলে যায়। ভবনটির লাগোয়া চশমা খালে জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পের কাজ চলার সময় ওই ঘটনা ঘটে।

তারও আগে ২০২১ সালের ডিসেম্বরে সদরঘাট থানার পার্বতী ফকিরপাড়া এলাকায় খননের সময় গুলজার খাল সংলগ্ন তিনতলা ও দোতলা ভবন দুটি হেলে পড়ে। পরে ভবন দুটি ভেঙে ফেলা হয়েছিল।

Also Read: চট্টগ্রামে চশমা খালের পাড়ে হেলে পড়েছে ভবন

Also Read: চট্টগ্রামে হেলে পড়েছে দুই ভবন