বাংলাদেশের ব্যাটিং ব্যর্থতার পর সাড়ে চারশ পেরিয়ে শ্রীলঙ্কার লিড

চট্টগ্রাম টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে বিশাল ব্যবধানে এগিয়ে লঙ্কানরা।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 April 2024, 12:08 PM
Updated : 1 April 2024, 12:08 PM

চট্টগ্রাম টেস্টে বাজে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষ হয়ে গেছে স্রেফ ১৭৮ রানেই। এরপর শ্রীলঙ্কা তৃতীয় দিন শেষ করেছে দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ১০২ রান তুলে।

প্রথম ইনিংসে ৩৫৩ রানের লিড পাওয়া লঙ্কানরা এখন এগিয়ে আছে মোট ৪৫৫ রানে।

১ উইকেটে ৫৫ রান নিয়ে দিন শুরু করে বাংলাদেশ। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান জাকির হাসান ও তাইজুল ইসলাম প্রথম ঘণ্টা কাটিয়ে দেন নির্বিঘ্নে। ৯৭ বলে ফিফটি পেরিয়ে যান জাকির।

জাকিরের বিদায় দিয়েই ধসের শুরু। ১ উইকেটে ৯৬ রান থেকে পরের ৮২ রানের মধ্যে ৯ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

৫৩ করা করা জাকিরের লেগ স্টাম্প উপড়ে যায় ভিশ্ব ফার্নান্দোর ভেতরে ঢোকা বলে। একটু পর নাইটওয়াচম্যান তাইজুল ইসলামের (২২) প্রতিরোধও ভাঙেন বাঁহাতি এই পেসার।

এই দুই উইকেটের মাঝে প্রাবাথ জায়ায়াসুরিয়ার ফাঁদে পা দিয়ে ১ রানেই শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ দেন অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

থিতু হওয়ার আভাস দিলেও সাকিব আল হাসান বিদায় নেন ১৫ রানে। আসিথা ফার্নান্দোর ওই ওভারেই একটি চার মেরে আউট হয়ে যান লিটন কুমার দাস।

পরের পাঁচ ব্যাটসম্যানের কেউ দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। জীবন পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি শাহাদাত হোসেন ও মেহেদী হাসান মিরাজ। লোয়ার অর্ডারে দাঁড়াতে পারেননি কেউ।

আগের টেস্টের মতো একপ্রান্ত লড়াই করছিলেন মুমিনুল হক। বাংলাদেশের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে চার হাজার  টেস্ট রান পূর্ণ করেন তিনি। তবে তার ইনিংসও আসিথা ফার্নান্দোর বলে থেমে যায় ৩৩ রানে।

চোট কাটিয়ে ফেরার টেস্টে চার উইকেট নেন আসিথা। সবশেষ বাংলাদেশ সফরে মিরপুর টেস্টে ১০ উইকেট শিকার করেছিলেন তিনি।

সাড়ে তিনশ রানের বেশি লিড নিয়েও বাংলাদেশকে ফলো-অন না করিয়ে আবার ব্যাটিংয়ে নামে লঙ্কানরা। এবার তারা ব্যাটিংয়ে সুবিধে করতে পারেননি। শুরু থেকেই উইকেট পড়তে থাকে নিয়মিত। দ্রুত রান তোলার তাড়া থেকেই হয়তো একের পর এক ব্যাটসম্যান আউট হন শট খেলতে গিয়ে।

ওপেনিংয়ে ৩৪ রান করে আউট হন নিশান মাদুশকা। অভিজ্ঞ অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস দিন শেষ করে ৩৯ রানে অপরাজিত থেকে। বাকি কোনো ব্যাটসম্যান দুই অঙ্ক পর্যন্ত যেতে পারেননি।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় পেসার হিসেবে অভিষেক টেস্টে এক ইনিংসে ৫ উইকেট পেতে আর কেবল একটি উইকেট লাগে হাসান মাহমুদের। তবে মূল চ্যালেঞ্জটা অপেক্ষায় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের জন্য।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা ‌১ম ইনিংস: ৫৩১

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৬৮.৪ ওভারে ১৭৮ (আগের দিন ৫৫/১) (জাকির ৫৪, তাইজুল ২২, শান্ত ১, মুমিনুল ৩৩, সাকিব ১৫, লিটন ৪, শাহাদাত ৮, মিরাজ ৭, খালেদ ১, হাসান ২*; ভিশ্ব ১৬-৫-৩৮-২, আসিথা ১০.৪-১-৩৪-৪, কুমারা ১১-৫-১৯-২, জায়াসুরিয়া ২৪-৪-৬৫-২, ধানাঞ্জয়া ৭-২-১৪-০)।

শ্রীলঙ্কা ২য় ইনিংস: ২৫ ওভারে ১০২/৬ (কারুনারাত্নে ৪, মাদুশকা ৩৪, কুসাল ২, ম্যাথিউস ৩৯*, চান্দিমাল ৯, ধানাঞ্জায়া ১, কামিন্দু ৯, জায়াসুরিয়া ৩*; খালেদ ৯-২-২৯-২, হাসান ১১-৩-৫১-৪, সাকিব ৪-০-২০-০, তাইজুল ১-০-১-০)।