বাংলাদেশের লম্বা বিরতিতে ইংল্যান্ডের 'বাড়তি সুবিধা'

চট করে টেস্ট খেলে ফেলে যায় না। বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে খেলতে একটা ছন্দ দরকার হয়। তাই টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের লম্বা বিরতি ইংল্যান্ড দলকে বাড়তি সুবিধা দিবে বলে মনে করছেন অধিনায়ক অ্যালেস্টার কুক।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Oct 2016, 10:43 AM
Updated : 19 Oct 2016, 02:55 PM

টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের শেষ দিনটি ছিল গত বছরের ৩ অক্টোবর। আগামী বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আবার সাদা পোশাকে খেলবে মুশফিকুর রহিমের দল। মাঝখানে বিরতি ৪৪৩ দিনের। এই সময়ে ইংল্যান্ড খেলেছে ১৬ টেস্ট। 

স্বাভাবিকভাবেই প্রতিপক্ষের টেস্ট খেলার মধ্যে না থাকার সুবিধা নিতে মুখিয়ে আছেন কুক।

“আমি মনে করি, এটা একটা সুবিধা হতে পারে। তবে ওরা আক্রমণাত্মক হতে পারে, যেমনটা আমরা ওয়ানডে সিরিজে দেখেছি।”

মুমিনুল হক ছাড়া প্রথম ছয় ব্যাটসম্যানের আর কেউ খেলেননি চলতি মৌসুমের জাতীয় ক্রিকেট লিগে। এক বছর ধরে বড় দৈর্ঘ্যের কোনো ম্যাচ না খেলা তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকুর রহিমদের খেলায় এর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।

তবে স্বাগতিক দলে প্রতিভার কমতি না থাকায় কুক মনে করেন, কঠিন পরীক্ষাই দিতে হবে তার দলকে।   

“গত তিন-চার বছরে বাংলাদেশ অনেক উন্নতি করেছে। ওদের মেধা আছে। আমি মনে করি, এটা আমাদের খুব ভালো একটি পরীক্ষা হবে।” 

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক