কর্মঘণ্টা কমিয়ে বদলে গেল অফিস সূচি

বুধবার থেকে সকল সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিস খোলা থাকবে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 August 2022, 09:04 AM
Updated : 22 August 2022, 09:25 AM

জ্বালানি সংকটের মধ্যে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের চেষ্টায় কর্মঘণ্টা কমিয়ে অফিস ও ব্যাংকের সময়সূচি বদলে দিয়েছে সরকার।

বুধবার থেকে সকল সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত অফিস খোলা থাকবে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। এতদিন সরকারি কর্মীরা অফিস করতেন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা।

এখন থেকে ব্যাংকের কাজ চলবে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত। এতদিন ব্যাংকের দাপ্তরিক কাজের সময় ছিল সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। পরে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের সামনে সভার সিদ্ধান্ত তুলে ধরেন।

বুধবার থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, “এটার দুইটা সুবিধা। একটা হল বিদ্যুতের সাশ্রয় হবে, আর ট্রাফিক জ্যামটাও একটু ডিস্ট্রিবিউটেড হয়ে যাবে।”

Also Read: বিদ্যুৎ বাঁচাতে অফিসের কর্মঘণ্টা কমানোর সুপারিশ যাচ্ছে

Also Read: শিক্ষালয়ে ছুটি এখনই দুদিন করার ভাবনা শিক্ষামন্ত্রীর

অফিসের সূচি বদলের পাশাপাশি সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও সপ্তাহে দুদিন বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত দিয়েছে সরকার।

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে আরও কিছু সিদ্ধান্ত হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, “সরকারি অফিসগুলোতে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে কোথাও কোনো পর্দা টানানো থাকবে না। লাইট যথাসম্ভব কম লাগিয়ে কাজ করতে হবে। এয়ার কুলারও যথাসম্ভব কম ব্যবহারের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।”

রাশিয়া-ইউক্রেইন যুদ্ধ জ্বালানির আন্তর্জাতিক বাজারে যে অস্থিরতা তৈরি করেছে, তার প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ উৎপাদনে। ফলে সম্প্রতি দেশজুড়ে লোড শেডিং ফিরে এসেছে। জ্বালানি তেলের দাম এক লাফে বাড়ানো হয়েছে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত।

এই পরিস্থিতি লকডাউনের সময়ের মত হোম অফিস চালু করা, অফিসের কর্মঘণ্টা কমিয়ে আনা, এসি ব্যবহারে সংযমী হওয়াসহ বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কাছে সুপারিশ করেছিল বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়।

গত ৭ জুলাই প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সবগুলো বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থার প্রধান এবং অন্যান্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেছিলেন, জ্বালানির দাম বাড়ায় ভর্তুকির যে চাপ তৈরি হয়েছে, তাতে ‘একমাত্র বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার মাধ্যমেই’ পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক করা সম্ভব বলে তারা মনে করছেন।

ওই বৈঠক থেকেই সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের অফিস-আদালতে কিংবা বাসায় এসি ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে রাখা, আলোকসজ্জা না করা, বিয়ে বা অন্যান্য সামাজিক অনুষ্ঠান সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে শেষ করা, বাজার, মসজিদ, শপিংমলে বিদ্যুতের ব্যবহার কমিয়ে আনা, যে কোনো রাতের অনুষ্ঠান সন্ধ্যা ৭টার মধ্যে শেষ করার সুপারিশ করা হয়।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয় ওই সুপারিশক করার দেড় মাস পর অপিস ও ব্যাংকের কাজের সূচি বদলের সরকারি ঘোষণা এল।

ব্যাংক

বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে, নতুন সূচিতে ব্যাংকের লেনদেন করা যাবে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত।

লেনদেন পরবর্তী ব্যাংকের দাপ্তরিক প্রয়োজন শেষ করতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো খোলা থাকবে। এ সময়ের মধ্যে সব কর্মকর্তা-কর্মচারীকে অফিস ত্যাগ করার বাধ্যবাধকতা দিয়ে নির্দেশনাটি জারি করে কেন্ত্রীয় ব্যাংক।

ব্যাংকের সময় এগিয়ে আনায় পুঁজিবাজারের লেনদেন ঘণ্টা ঠিক রেখে সময় এগিয়ে এনে শুরু করার বিষয়টি ভাবছে বলে জানিয়েছেন বিএসইসির মুখপাত্র মো. রেজাউল করিম।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, ‘‘কমিশন সকাল ৮টা থেকে অফিস শুরু করবে। আগামীকাল মঙ্গলবার ব্যাংকের সঙ্গে সমন্বয় করে নতুন লেনদেন সময় নির্ধারণ করে তা জানিয়ে দেওয়া হবে।’’

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

প্রাথমিক ও মাধ্যমিকসহ সব শিক্ষালয়ে সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে শুক্র ও শনিবার। আগামী সপ্তাহ থেকেই এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

বর্তমানে যেসব স্কুলে বৃহস্পতিবার অর্ধদিবস ক্লাস হয়, তার বদলে নতুন সূচিতে পূর্ণদিবস ক্লাস হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে স্ব স্ব কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতেও অনুরোধ জানানো হয়েছে।

দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটির সিদ্ধান্ত হলেও সময়সূচিতে এখনই কোনো পরিবর্তন আসছে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

তিনি বলেছেন, “সপ্তাহের ছয়দিন পাঠদানের যে কাজ সম্পন্ন হত, তা পাঁচ দিনেই করতে হবে। আপাতত স্কুল-কলেজের সময়সূচি পরিবর্তন হচ্ছে না।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক