এক এজেন্সি থেকে অন্য এজেন্সিতে হজযাত্রী স্থানান্তরের সুযোগ

যেসব হজ এজেন্সির কাছে ৯৭ এর কম হজযাত্রী রয়েছে; সেসব এজেন্সি তাদের হজযাত্রীদের অন্য এজেন্সিতে স্থানান্তর করতে পারবেন।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 May 2022, 01:37 PM
Updated : 9 May 2022, 01:37 PM

ধর্ম মন্ত্রণালয় সোমবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এই সুযোগ দেওয়ার কথা জানিয়ে বলেছে, আগামী ১৫ মের মধ্যে এই স্থানান্তর করতে হবে।

বিশ্বের মুসলামানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সম্মিলন হজ এবার অনুষ্ঠিত হবে আগামী জুলাই মাসের প্রথম ভাগে। কোভিড মহামারীর কারণে দুই বছর বন্ধ থাকার পর এবার হজে বিদেশ থেকে অংশ নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছে সৌদি আরব।

এবছর বাংলাদেশ থেকে ৫৭ হাজার ৮৫৬ জন হজে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। তবে মহামারীর মধ্যে নিবন্ধন করেও যারা যেতে পারেননি, তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

হজযাত্রার প্রস্তুতির মধ্যে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সোমবারের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২২ সালে হজকার্যক্রম পরিচালনার জন্য বৈধ হজ এজেন্সির তালিকায় প্রকাশিত যে সব হজ এজেন্সির প্রাক-নিবন্ধিত ব্যক্তির সংখ্যা ৯৭ বা তদূর্ধ্ব, সে সব এজেন্সিকে ২০২২ সনের হজের নিবন্ধন স্থানান্তর কার্যক্রম সম্পন্নের জন্য অনুমতি দেওয়া হল।

বৈধ যে সব হজ এজেন্সির নিবন্ধিত ব্যক্তির সংখ্যা ৯৭ জনের কম, সে সব হজ এজেন্সি পরস্পর সমঝোতা ও সমন্বয় করে ‘লীড’ এজেন্সিতে তাদের হজযাত্রী স্থানান্তর করতে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “লীড এজেন্সি নির্ধারণ করে ২০২০ সালে নিবন্ধিত হজযাত্রীদের এক এজেন্সি থেকে অন্য এজেন্সিতে স্থানান্তর সম্পন্ন করতে হবে।”

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, ১৩ শতাধিক হজ এজেন্সির মধ্যে সচল আছে ১০৫৩টি এজেন্সি। যাদের ৯৭ ও এর বেশি হজযাত্রী থাকবে, তারাই “লীড এজেন্সি’।

যে সব হজ এজেন্সি বিভিন্ন অভিযোগে শাস্তিপ্রাপ্ত, লাইসেন্স স্থগিত রয়েছে কিংবা লাইসেন্স সচল নেই বলে ই-হজ সিস্টেমে এজেন্সির ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড বন্ধ, সে সব হজ এজেন্সির অধীন বিদ্যমান নিবন্ধিত হজযাত্রীদের সচল এজেন্সিতে স্থানান্তর করতে বলা হয়েছে।

এই কাজ শেষ হওয়ার পর সৌদি আরবে হজ এজেন্সির তালিকা এবং হজ এজেন্সিভিত্তিক হজযাত্রীর সংখ্যা পাঠানো হবে জানিয়ে বলা হয়েছে, সে কারণে এই সময়সীমা ১৫ মের পর বাড়ানো হবে না।

আরও খবর

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক