গাজায় আরও ২৪ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতি

এতে কাতার ও মিশরের মধ্যস্থতায় গত শুক্রবার থেকে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে শুরু হওয়া যুদ্ধবিরতি সপ্তম দিনে গড়িয়েছে।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2023, 08:26 AM
Updated : 30 Nov 2023, 08:26 AM

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের মধ্যে জিম্মি ও বন্দী বিনিময় অব্যাহত রাখতে গাজায় যুদ্ধবিরতির মেয়াদ আরও একদিন বাড়ানো হয়েছে।

টানা ছয়দিন ধরে গাজায় সহিংসতা বন্ধ থাকার পর বুধবার যুদ্ধবিরতি শেষ হওয়ার মুহূর্তে উভয়পক্ষ ফের ২৪ ঘণ্টা মেয়াদ বাড়াতে সম্মত হয়। এতে বৃহস্পতিবার সপ্তম দিনের মতো যুদ্ধবিরতি বহাল থাকছে।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী বলছে, ৩০ ফিলিস্তিনি বন্দির বিনিময়ে বুধবার হামাস ১৬ জনকে জিম্মিদশা থেকে মুক্তি দিয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জন ইসরায়েলি নাগরিক, ৪ জন থাইল্যান্ডের ও ২ জন রাশিয়ার নাগরিক। মধ্যস্থতাকারীদের চেষ্টায় জিম্মিদের মুক্তির কাজ চালিয়ে যেতে যুদ্ধবিরতি বৃহস্পতিবার সপ্তম দিনের মত অব্যাহত থাকবে।

অপরদিকে হামাস এক বিবৃতিতে বলেছে, সাময়িক যুদ্ধবিরতি বাড়ানোর একটি চুক্তি হয়েছে। ফলে যুদ্ধ বিরতি আরও ২৪ ঘণ্টা চলবে।

জিম্মি মুক্তি এবং গাজায় ত্রাণ বিতরণের লক্ষ্যে কাতার ও মিশরের মধ্যস্থতায় গত শুক্রবার থেকে গাজায় ‘মানবিক’ যুদ্ধবিরতি শুরু হয়েছে। ইসরায়েল ও হামাস প্রথমে চারদিনের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়। এই যুদ্ধবিরতি চুক্তির অন্যতম শর্ত ছিল হামাস ইসরায়েল থেকে ধরে নিয়ে যাওয়া জিম্মিদের মুক্তি দেবে। বিনিময়ে ইসরায়েল সে দেশের কারাগারে বন্দি ফিলিস্তিনিদের মুক্তি দেওয়ার পাশাপাশি গাজায় জরুরি ত্রাণ ও জ্বালানি প্রবেশ করতে দেবে।

আন্তর্জাতিক চাপ এবং আরো অধিক জিম্মি ও বন্দি মুক্তির কথা বিবেচনা করে সোমবার যুদ্ধবিরিতির শেষ দিন উভয়পক্ষ ‘মানবিক’ বিরতির মেয়াদ আরো দুই দিন বাড়াতে সম্মত হয়। বুধবার ছিল বাড়ানো মেয়াদের দ্বিতীয় বা শেষ দিন। এদিন অবরুদ্ধ গাজায় আরও বেশ কিছু ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে।

গত ৭ অক্টোবর হঠাৎ ইসরায়েলে নজিরবিহীন এক আক্রমণ চালায় হামাস। এই আক্রমণে ১২০০ জন নিহত হয় বলে জানিয়েছে ইসরায়েল। এরপর থেকে অস্থায়ী যুদ্ধবিরতির আগ পর্যন্ত ইসরায়েল টানা ৭ সপ্তাহ ধরে গাজায় অবিরাম বোমাবর্ষণ ও গোলা হামলা চালিয়েছে। তাদের হামলায় ১৫ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, যাদের প্রায় ৪০ শতাংশ শিশু।

যুদ্ধে ব্যাপক মানবিক সংকটের পরিস্থিতিতে কাতার ও মিশরের মধ্যস্থতায় গত শুক্রবার থেকে কথিত ‘মানবিক’ যুদ্ধবিরতি শুরু হয়েছে, যা বৃহস্পতিবার সপ্তম দিনে গড়িয়েছে।

আরও পড়ুন-

Also Read: যুদ্ধবিরতির ষষ্ঠ দিনে আরো ১৬ জিম্মি ও ৩০ ফিলিস্তিনি বন্দির মুক্তি