রোনালদোর অনিশ্চিত ভবিষ্যত ‘প্রভাব ফেলবে না বিশ্বকাপে’

বিশ্বকাপেই পূর্ণ মনোযোগ রোনালদো ও পর্তুগালের, বললেন দলটির মিডফিল্ডার ব্রুনো ফের্নান্দেস ও কোচ ফের্নান্দো সান্তোস।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Nov 2022, 06:56 AM
Updated : 24 Nov 2022, 06:56 AM

বিশ্ব মঞ্চে নামার আগে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড চুক্তি বাতিল করায় ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর মনোযোগে কোনো ধরনের আঁচ পড়ছে না বলেই মনে করছেন সতীর্থ ব্রুনো ফের্নান্দেস। পর্তুগালের প্রধান কোচ ফের্নান্দো সান্তোস বলেছেন, এসবের কোনো প্রভাবই পড়বে না তাদের বিশ্বকাপ অভিযানে।

স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ বৃহস্পতিবার ঘানার বিপক্ষে আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে পর্তুগাল। বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় শুরু হবে ‘এইচ’ গ্রুপের ম্যাচটি।

কাতারে আসার আগে ইউনাইটেড মালিকপক্ষ, কোচ এরিক টেন হাগসহ আরও অনেক বিষয় নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন রোনালদো। এরপর তার সঙ্গে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটির সম্পর্ক ছিন্ন করা একরকম নিশ্চিতই ছিল। গত মঙ্গলবার এলো সেই ঘোষণা।

পর্তুগালের বুধবারের ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে অনুমিতভাবেই ওঠে রোনালদোর সঙ্গে ইউনাইটেডের বিচ্ছেদ নিয়ে প্রশ্ন। মিডফিল্ডার ফের্নান্দেস স্পষ্ট জানিয়ে দেন, তারা এখন মনোনিবেশ করছেন স্রেফ বিশ্বকাপে।

“ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে এসব নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি আমার। এটা তার ব্যক্তিগত বিষয় এবং তিনি তা সামলাচ্ছেন। আমাদের মনোযোগ পুরোপুরি জাতীয় দলে।”

জাতীয় দলের পাশাপাশি ইউনাইটেডেও রোনালদোর সতীর্থ ফের্নান্দেস। তাদের সম্পর্কে এর কোনো প্রভাব পড়ছে কিনা এমন প্রশ্নও ওঠে।

“ক্রিস্তিয়ানোর সঙ্গে যা ঘটছে তার জন্য আমি অস্বস্তিবোধ করছি না। জাতীয় দল ও ক্লাব পর্যায়ে তার সঙ্গে খেলা সৌভাগ্যের বিষয়। ক্রিস্তিয়ানো আমার জন্য আদর্শ।”

“বিশ্বকাপ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর কাছে অনেক বড় কিছু। আমি নিশ্চিত তিনি এই প্রতিযোগিতার দিকেই মনযোগী। সাধারণত আশেপাশে চলমান বিষয়গুলো নিয়ে অনেক আলোচনা হয়, তবে আমি নিশ্চিত ক্রিস্তিয়ানো মনযোগী।”

এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলতে না পারা পর্তুগাল দলের কোচ সান্তোস বললেন, অধিনায়ককে নিয়ে কোনো দুর্ভাবনা নেই তার।

“ক্রিস্তিয়ানোর সঙ্গে যা ঘটছে তা নিয়ে আমি বিচলিত নই। অনুশীলনে বা যখন আমরা একসঙ্গে থাকি তখন এটি নিয়ে আলোচনা করা হয়নি। কোনো কথা হয়নি। তার পক্ষ থেকেও না। আমি জানি না, তারা তাদের কক্ষে পরস্পরের সঙ্গে কী কথা বলে।”

২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপের সময় পর্তুগালের অনেক খেলোয়াড়েরই ক্লাব চুক্তি ছিল না, সেই উদাহরণ দিলেন সান্তোস।

“চুক্তির দিক থেকে অনেক খেলোয়াড়ের জন্য চ্যালেঞ্জিং ছিল ওই সময়টা। ছয় কিংবা সাত জন রাশিয়া গিয়েছিল কোনো ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি ছাড়াই।”

পঞ্চম বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছেন ৩৭ বছর বয়সী রোনালদো। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপ ১৭ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। পর্তুগালের হয়ে বিশ্ব মঞ্চে তার চেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেননি আর কেউ।

বৈশ্বিক আসরে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের কীর্তিও নিজের করে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে রোনালদোর। ৯ গোল করে রেকর্ডটি এখন ইউজেবিওর। বিশ্বকাপে রোনালদোর গোল ৭টি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক