মেসি জাদুতে টিকে রইল আর্জেন্টিনার আশা

বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে মারাদোনার সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড স্পর্শ করলেন মেসি।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Nov 2022, 07:52 PM
Updated : 26 Nov 2022, 07:52 PM

পা হড়কালেই বিপদ, হারলেই বিদায়; দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া অবস্থায় গত ম্যাচের হতাশা যেন আরও ঘিরে ধরল আর্জেন্টিনা দলকে। দলকে বাঁচাতে, স্বপ্নটাকে জিইয়ে রাখতে এগিয়ে এলেন লিওনেল মেসি। জাদুকরী এক মুহূর্তে দেখালেন পথ। মেক্সিকোকে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপে টিকে রইল মেসির দল, আর্জেন্টিনা।

লুসাইল স্টেডিয়ামে প্রায় ৮৯ হাজার দর্শকের সামনে শনিবার রাতে ‘সি’ গ্রুপের ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে লিওনেল স্কালোনির দল। দারুণ এক গোল করার পাশাপাশি এনসো ফের্নান্দেসের গোলেও অবদান রাখেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক।

সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-১ গোলে হারের ম্যাচের একাদশে পাঁচটি পরিবর্তন আনেন কোচ স্কালোনি। কিন্তু খেলোয়াড়দের মনে তৈরি হওয়া ভয়টাকে হয়তো পারেননি তাড়াতে। অন্তত তাদের প্রথমার্ধের পারফরম্যান্স সেদিকেই ইঙ্গিত করে।

Also Read: মারাদোনার পাশে মেসি

তাইতো প্রথমার্ধের প্রায় পুরোটা জুড়ে নিজেদের খুঁজে ফিরল মেসি-মার্তিনেসরা। তাদের খেলায় ছিল না কোনো পরিকল্পনা ছাপ।

প্রতিপক্ষের বিবর্ণতার সুযোগ অবশ্য মেক্সিকোও নিতে পারেনি। দশম মিনিটে একটি হাফ-চান্স পায় তারা; তবে ডি-বক্সের মাঝ থেকে সেসার মন্তেসের শট লক্ষ্যের ধারেকাছেও ছিল না।

৩২তম মিনিটে গিয়ে প্রথম কর্নার পায় আর্জেন্টিনা। মেসির কর্নার কিক প্রতিপক্ষ শিবিরে কোনো ভীতির সঞ্চারও করতে পারেনি। ৪০তম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় তারা; কিন্তু আনহেল দি মারিয়ার ক্রসে ছয় গজ বক্সের সামনে থেকে লাউতারো মার্তিনেসের হেড যায় উড়ে।

পাঁচ মিনিট পর দারুণ নৈপুণ্যে জাল অক্ষত রাখেন আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেস। আলেক্সিস ভেগার ফ্রি-কিক ঝাঁপিয়ে ফেরান তিনি।

Also Read: মেসি বললেন, ‘আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ কেবল শুরু’

প্রথম ৪৫ মিনিটে গোলের উদ্দেশ্যে কেবল একবারই প্রচেষ্টা চালাতে পারে আর্জেন্টিনা, সেটাও লক্ষ্যভ্রষ্ট। জবাবে মেক্সিকোর তিন শটের একটি ছিল লক্ষ্যে।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে বক্সের বাইরে দারুণ পজিশনে ফ্রি-কিক পায় আর্জেন্টিনা। কিন্তু মেসির উড়িয়ে মারা শটে কেবল হতাশাই বাড়ে।

যেন দীর্ঘ এক অপেক্ষার শেষে ৬৪তম মিনিটে স্বরূপে হাজির হন মেসি। দি মারিয়ার কাছ থেকে বল পেয়ে প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে শট নেন রেকর্ড সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। গিয়ের্মো ওচোয়া ঝাঁপিয়েও নাগাল পাননি, বল পোস্ট ঘেঁষে খুঁজে নেয় ঠিকানা।

জাতীয় দলের হয়ে মেসির মোট গোল হলো ৯৩টি। বিশ্বকাপে আটটি, দিয়েগো মারাদোনার সমান।

আক্রমণ শাণাতে পরেও বেশ ভুগতে হয় আর্জেন্টিনাকে। তবে গোল পেয়ে উজ্জীবিত হয়ে ওঠা দলটির জবাব হয়তো জানা ছিল না মেক্সিকোর। তেমন কিছু করতেও পারেনি তারা।

মাঠে নতুন প্রাণের সঞ্চার করতে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুদে গিদো রদ্রিগেসকে বসিয়ে এনসো ফের্নান্দেসকে নামান আর্জেন্টিনা কোচ। ৮৭তম মিনিটে অসাধারণ এক গোলে তিনিই শেষ করে দেন সব অনিশ্চয়তা।

Also Read: ছবিতে মেসিদের জয়োল্লাস

ছোট করে নেওয়া কর্নারে মেসির পাস পেয়ে বাঁ দিক দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকলেন ফের্নান্দেস, এক ঝটকায় সামনের প্রতিপক্ষের বাধা দূর করে নিলেন জোরাল শট, বল বাঁক খেয়ে ঝাঁপিয়ে পড়া ওচোয়াকে ফাঁকি দিয়ে স্পর্শ করল জাল। উল্লাসে ফেটে পড়ল আর্জেন্টিনা।

আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফের্নান্দেসের এটাই প্রথম গোল। প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নেমে দলের খুব প্রয়োজনের মুহূর্তে কী সুন্দর গোলটাই না করলেন তিনি!

২০০৬ সালে মেসির পর সবচেয়ে কম বয়সে আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপে গোল করলেন মার্তিনেস, ২১ বছর ৩১৩ দিন বয়সে। জার্মানির ওই আসরে মেসি গোল করেছিলেন ১৮ বছর ৩৫৭ দিন বয়সে।

সাড়ে তিন বছরের অজেয় পথচলা, টানা ৩৬ ম্যাচের অপরাজেয় যাত্রায় বেড়ে ওঠা পাহাড়সম আত্মবিশ্বাস- চার দিন আগের ওই এক হারেই যেন সব শেষ হতে বসেছিল। আপাতত সেই শঙ্কা কাটল, তবে শেষ ষোলোয় উঠতে সামনেও পার করতে হবে কঠিন ধাপ।

দুই রাউন্ড শেষে ৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে পোল্যান্ড। আর্জেন্টিনা ও সৌদি আরবের পয়েন্ট সমান ৩ করে, তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে দুইয়ে স্কালোনির দল।

১ পয়েন্ট নিয়ে সবার নিচে মেক্সিকো।

পোল্যান্ডের সঙ্গে গোলশূন্য ড্রয়ে আসর শুরু করা মেক্সিকো বিশ্বকাপে যেন গোল করতেই ভুলে গেছে। বিশ্ব সেরার মঞ্চে তাদের গোল খরা ৪৩২ মিনিটের।

পরের ধাপে ওঠার সুযোগ অবশ্য তাদেরও আছে। তবে সেজন্য জিততেই হবে এবং প্রার্থনা করতে হবে যেন অন্য ম্যাচের ফল পক্ষে আসে।

জিততে হবে আর্জেন্টিনারও, যদি অন্য ম্যাচের ফলের ওপর নির্ভর করতে না হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক