কষ্টের জয়ে আসর শুরু নেদারল্যান্ডসের

প্রায় সমানে-সমান লড়াই করলেও ফিনিশিংয়ে ব্যর্থতায় পেরে উঠল না সেনেগাল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Nov 2022, 05:07 PM
Updated : 21 Nov 2022, 05:07 PM

হয়তো আগের ভুলটা পুষিয়ে দিলেন ফ্রেংকি ডি ইয়ং। প্রথমার্ধে সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করা এই মিডফিল্ডার অসাধারণ এক ক্রসে খুঁজে নিলেন কোডি হাকপোকে। তার হেড হলো আরও ভালো। এদুয়ার্দো মঁদিকে ফাঁকি দিয়ে বল জড়াল জালে। ডেডলক ভেঙে এগিয়ে গেল নেদারল্যান্ডস। জয় দিয়ে শুরু করল কাতার বিশ্বকাপ।   

দোহার আল থুমামা স্টেডিয়ামে সোমবার ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ২-০ গোলে জিতেছে লুই ফন খালের দল। ৮৪তম মিনিটে হাকপো এগিয়ে নেওয়ার পর যোগ করা সময়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডেভি ক্লাসেন। 

ফল যা বলছে, এর চেয়ে অনেক বেশি লড়াই হয়েছে ম্যাচে। অনেক বেশি ঘাম ঝরাতে হয়েছে ডাচদের। গোলের জন্য শট তাদের চেয়ে অনেক বেশি নিয়েছে সেনেগাল।

চোটের জন্য টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই ছিটকে যাওয়া সাদিও মানের অভাব বেশ অনুভব করে সেনেগাল। ফিনিশিংয়ে ব্যর্থতা খুব ভুগিয়েছে তাদের। গোলের জন্য আফ্রিকান চ্যাম্পিয়নরা শট নেয় ১৫টি। এর চারটি ছিল লক্ষ্য। যার তিনটি দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন ডাচ গোলরক্ষক। 

এর বিপরীতে ডাচদের ১০ শটের কেবল তিনটি ছিল লক্ষ্যে। ৮৪তম মিনিটে প্রথমবার লক্ষ্যে শট রাখতে পারে তারা, সেটিতেই মেলে গোল। পরে মেমফিস ডিপাইয়ের দুটি শট থাকে লক্ষ্যে, এর একটি গোলরক্ষকের হাত থেকে ফস্কে গেলে জালে পাঠান ক্লাসেন।

ঢিমেতালে শুরু হওয়া ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় নেদারল্যান্ডস। নিচু ক্রস করেন হাকপো, পেনাল্টি স্পটের কাছ দিয়ে বেরিয়ে যায় বল, ডাচদের কেউই নাগাল পাননি। বেঁচে যায় সেনেগাল। 

১৯তম মিনিটে সেনেগালের কর্নার আটকে প্রতি-আক্রমণে এগিয়ে যেতে পারত নেদারল্যান্ডস। এক জনের চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে গিয়েও স্টিভেন বেরহাস খুঁজে নেন ডি ইয়ংকে। গোলরক্ষককে একাই পেয়েছিলেন অরক্ষিত এই মিডফিল্ডার। বিস্ময়করভাবে শট নিতে দেরি করে ফেলেন তিনি। ততক্ষণে এসে যায় ডিফেন্ডাররা। আর শটই নিতে পারেননি ডি ইয়ং।

৪০তম মিনিটে ডেনজিল ডামফ্রিসের কাছ থেকে বল পেয়ে বুলেট গতির শট নেন বেরহাস। কিন্তু শট একটুর জন্য থাকেনি লক্ষ্যে। 

৫৩তম মিনিটে কর্নার থেকে আবার সুযোগ আসে ডাচদের সামনে। কিন্তু লক্ষ্যে থাকেনি ভার্জিল ফন ডাইকের হেড। ১২ মিনিট পর কাছের পোস্টে বোলায়ে দিয়ার শট কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন নোপার্ট।

৮৪তম মিনিটে ডি ইয়ংয়ে দুর্দান্ত ক্রসে ছুটে গিয়ে অসাধারণ এক হেডে নেদারল্যান্ডসকে এগিয়ে নেন হাকপো। এগিয়ে এসেও বলের নাগাল পাননি মঁদি। তাকে ফাঁকি দিয়ে বল চলে যায় জালে।

পরের মিনিটেই সমতা ফেরাতে পারত সেনেগাল। কিন্তু পোস্ট ঘেঁষে নেওয়া পাপে গেইয়ের শট ঝাঁপিয়ে ব্যর্থ করে দেন নোপার্ট। 

ম্যাচের অন্তিম সময়ে শেষ শটে স্কোরলাইন ২-০ করে ফেলেন ৭৯তম মিনিটে বদলি নামা ক্লাসেন। ডিপাইয়ের প্রচেষ্টা ঝাঁপিয়ে ঠিক মতো ফেরাতে পারেননি চেলসি গোলরক্ষক মঁদি। আলগা বল পেয়ে যান আয়াক্স মিডফিল্ডার ক্লাসেন। বাকিটা অনায়াসে সারেন তিনি। 

এর আগে রোববার টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে কাতারকে ২-০ গোলে হারায় একুয়েডর। একই ব্যবধানে জেতার পর লাতিন আমেরিকার দলটির সঙ্গে প্রথম দুটি স্থানে আছে নেদারল্যান্ডস।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক