নুনেসের শেষ সময়ের গোলে লিভারপুলের নাটকীয় জয়

লিগ টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির চেয়ে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে গেল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 March 2024, 05:10 PM
Updated : 2 March 2024, 05:10 PM

নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর যোগ করা সময়ের আট মিনিটও পেরিয়ে গেছে তখন। স্কোরলাইন গোলশূন্য। লিভারপুলের পয়েন্ট হারানো স্রেফ সময়ের ব্যাপার মাত্র। এমন সময়েই ত্রাতা হয়ে এলেন দারউইন নুনেস। শেষ মুহূর্তে গোল করে দলকে দারুণ এক জয় এনে দিলেন উরুগুয়ের এই ফরোয়ার্ড।

নটিংহ্যাম ফরেস্টের মাঠে শনিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে লিভারপুল।

চোট কাটিয়ে এই ম্যাচ দিয়েই নুনেস মাঠে ফেরেন দ্বিতীয়ার্ধে। শেষ পর্যন্ত দলের জয়ের নায়কও হয়ে গেলেন তিনি।

এই জয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির চেয়ে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে গেল ইয়ুর্গেন ক্লপের দল।

চোটের কারণে প্রথম পছন্দের বেশ কয়েক জন খেলোয়াড়কে ছাড়াই গত কিছুদিন ধরে খেলতে হচ্ছে লিভারপুলকে। তারপরও সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ছয় ম্যাচ জিতল তারা।

অষ্টাদশ মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় লিভারপুল। অ্যান্ডি রবার্টসনের ক্রসে বক্সে লুইস দিয়াসের হেড রুখে দেন নটিংহ্যামের এক ডিফেন্ডার।

২৩তম মিনিটে দারুণ সেভে লিভারপুলকে রক্ষা করেন কুইভেন কেলাহার। সতীর্থের থ্রু বল ধরে বক্সে ঢুকে পড়েন নটিংহ্যামের অ্যান্থনি এলাঙ্গা। তার সামনে একমাত্র বাধা তখন কেলাহার। এগিয়ে এসে তরুণ সুইডিশ ফরোয়ার্ডের প্রচেষ্টা পা দিয়ে আটকে দেন আইরিশ গোলরক্ষক।

একটু পর আরেকটি সুযোগ পায় লিভারপুল। বক্সে দিয়াসের শট প্রতিহত হওয়ার পর কাছ থেকে ববি ক্লার্কের প্রচেষ্টা নটিংহ্যামের এক ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে আরেকটি ভালো সুযোগ আসে লিভারপুলের সামনে। বক্সের ভেতর থেকে রবার্টসনের শট গোলরক্ষকের পা ছুঁয়ে বাইরে দিয়ে যায়।

৬০তম মিনিটে রবার্টসনের বদলি হিসেবে মাঠে নামেন নুনেস। চার মিনিট পরই তিনি সুযোগ পান একটি। দুরূহ কোণ থেকে তার শট পাশের জালে লাগে।

৭৬তম মিনিটে হার্ভে এলিয়টের জায়গায় নামেন সোবোসলাই। তিনিও ফিরলেন চোট কাটিয়ে। ৮৩তম মিনিটে হাঙ্গেরির এই মিডফিল্ডারের একটি শট আটকে যায় রক্ষণে।

যোগ করা সময়ের পঞ্চম মিনিটে কর্নারে বক্সে নুনেসের হেড প্রতিপক্ষের একজনের গায়ে লেগে জালে জড়াতে যাচ্ছিল। দারুণভাবে এক হাতে ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক।

রেফারির শেষ বাঁশি বাজা যখন সময়ের ব্যাপার, তখনই নুনেসের গোল। প্রথমে লিভারপুলের কর্নার হেডে ক্লিয়ার করেন নটিংহ্যামের এক ফুটবলার। সেই বলে বক্সের ভেতর থেকে কস্তাস সিমিকাসের শট আটকে যায় রক্ষণে। বল আবার ক্লিয়ার করার সুযোগ পেয়েও পারেনি স্বাগতিকরা। বক্সের বাইরে থেকে আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার আলেক্সিস মাক আলিস্তেরের ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখে লাফিয়ে হেডে বল জালে পাঠিয়ে দলকে উল্লাসে ভাসান নুনেস।

২৭ ম্যাচে ১৯ জয় ও ৬ ড্রয়ে লিভারপুলের পয়েন্ট হলো ৬৩। ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ম্যানচেস্টার সিটি। শিরোপাধারীরা অবশ্য একটি ম্যাচ কম খেলেছে।

সিটির সমান ২৬ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে আর্সেনাল।

২৭ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে ১৭ নম্বরে আছে নটিংহ্যাম।