টানা বৃষ্টিতে ফরিদপুরে তলিয়েছে পেঁয়াজ ক্ষেত, ক্ষতির শঙ্কা

পানিতে তলিয়ে যাওয়া ৭০ শতাংশ পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলে শঙ্কা কৃষকের।

ফরিদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Dec 2023, 12:29 PM
Updated : 8 Dec 2023, 12:29 PM

ঘূর্ণিঝড় ‘মিগযাউমের’ প্রভাবে তিন দিনের টানা বর্ষণে ফরিদপুরে পেঁয়াজের বীজতলাসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষেত তলিয়ে গেছে; এতে ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। 

কৃষকরা বলছেন, মৌসুমের শুরুতে হঠাৎ এমন বৃষ্টিতে সালথা ও নগরকান্দা উপজেলার বিস্তীর্ণ পেঁয়াজ ক্ষেতে পানি জমে গেছে। তলিয়ে যাওয়া ৭০ শতাংশ পেঁয়াজ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। 

নগরকান্দা গ্রামের কৃষক মো. আহাদ হোসেন বলেন, “তিন দিনের টানা বৃষ্টিতে পেঁয়াজের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। হালি পেঁয়াজ পচে যাওয়ার ভয়ে কাদার মধ্যেই চারা রোপন করছি। এতে করে আমরা অর্থনৈতিক ক্ষতির মুখে পড়ব।”

একই এলাকার কৃষক ফরহাদ শেখ বলেন, “এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে পেঁয়াজের চারা রোপণ করেছি। তিন দিনের বৃষ্টিতে আমার রোপণ করা সব চারা ডুবে গেছে; আমি এখন কী করব? কীভাবে এনজিওর টাকা শোধ করব ভেবে পাচ্ছি না।”

নগরকান্দা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তিলক কুমার ঘোষ বলেন, টানা বৃষ্টিতে উপজেলার প্রায় সাড়ে তিনশো হেক্টর জমির মুড়িকাটা পেঁয়াজ ও চল্লিশ হেক্টর জমির হালি পেঁয়াজ ক্ষেত ক্ষতির মুখে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে কৃষকদের জমি থেকে পানি নামিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। 

নগরকান্দায় এ বছর প্রায় ৮ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ আবাদের সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

বৃষ্টিতে ক্ষয়ক্ষতি প্রসঙ্গে সালথা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুদর্শন শিকদার বলেন, সালথায় এবার ১২০ হেক্টর জমিতে মুড়িকাটা পেঁয়াজের আবাদ হয়েছে। পেঁয়াজের বীজতলা আবাদ করা হয়েছে ৭৬০ হেক্টর। 

এসব মুড়িকাটা পেঁয়াজ ও পেঁয়াজের বীজতলার বেশিরভাগ তলিয়ে গেছে। ক্ষেতের পানি দ্রুত নামিয়ে ফেলতে কৃষককে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বৃষ্টি না হলে আর তেমন ক্ষতি হবে না। 

আর যদি বৃষ্টি অব্যাহত থাকে তাহলে পেঁয়াজের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান এ কৃষি কর্মকর্তা।