‘মাদক ব্যবসায়ীদের’ গুলিতে নিহত হন শাহীন, মামলায় বলছে ব়্যাব

রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়ায় বৃহস্পতিবার দুপুরে র‌্যাব অভিযান চালালে কথিত বন্দুকযুদ্ধে শাহীন মারা যান।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Nov 2022, 01:03 PM
Updated : 11 Nov 2022, 01:03 PM

নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানের মধ্যে নিহত ২৩ মামলার আসামি শাহীন মিয়া ওরফে সিটি শাহীন ‘মাদক ব্যবসায়ীদের গুলিতে’ নিহত হয়েছেন বলে লেখা হয়েছে মামলার এজাহারে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়ায় র‌্যাব অভিযান চালালে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মারা যান শাহীন। 

রূপগঞ্জ থানার ওসি এএফএম সায়েদ জানান, এই ঘটনায় শুক্রবার সকালে ব়্যাব-১ এর পরিদর্শক মো. আশরাফুজ্জামান বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন।  সেখানে অজ্ঞাতপরিচয় ‘মাদক ব্যবসায়ীদের’ আসামি করা হয়।

এ ছাড়া একই ঘটনায় অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারের বিষয়ে ব়্যাবের পরিদর্শক আশরাফুজ্জামান আরও দুটি মামলা করেছেন বলে ওসি জানান৷ 

প্রথম মামলার এজাহারে বলা হয়, বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে মাদকের বড় চালান ক্রয়-বিক্রয়ের খবর পেয়ে চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বালুর মাঠে যায় ব়্যাবের একটি দল৷ মাদক ব্যবসায়ীরা ব়্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে র‌্যাব গুলি চালায়৷ সেই সাথে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে৷ 

‘আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব পাল্টা গুলি ছোড়ে’ জানিয়ে মামলায় বলা হয়, প্রায় ১০-১৫ মিনিট উভয়পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি চলে৷ গোলাগুলি চলাকালে মাদক ব্যবসায়ীদের ধাওয়া দেওয়ার সময় ব়্যাবের কয়েকজন সদস্য আহত হন৷ 

অভিযান শেষে ফেরার পথেও ‘দুষ্কৃতকারীরা’ ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে; তখন ব়্যাব সদস্যরা কৌশলে রক্ষা পান বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে। 

এজাহারে বাদী আশরাফুজ্জামান বলেন, স্থানীয় লোকজন ও রূপগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে তাদের উপস্থিতিতে দুপুর ২টার দিকে বালুর মাঠের মাঝখানে ‘মাদক ব্যবসায়ী’ শাহীনকে উপুড় হয়ে পড়ে থাকতে দেখা যায়৷ 

“অজ্ঞাতনামা মাদক ব্যবসায়ীদের এলোপাতাড়ি গুলিতে শাহীন আহত হয়৷ তাকে উদ্ধার করে মুগদা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ ৪টা বেজে ২০ মিনিটে তিনি মারা যান৷ ”

আহত অবস্থায় পড়ে থাকা শাহীনের পাশ থেকে ৮ ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের একটি বিদেশি পিস্তল, তিনটি গুলিসহ ম্যাগাজিন, পাশে দুটি গুলির খোসা পাওয়া যায়৷ দুটি জিপার প্যাকেটের ভেতর ৪৫ গ্রাম হেরোইনও উদ্ধার করার কথাও বলা হয়েছে মামলায়।

Also Read: নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের ‘বন্দুকযুদ্ধে ২৩ মামলার আসামি’ নিহত

এদিকে শাহীন মিয়ার শ্যালক মো. পারভেজ দাবি করেছেন, র‌্যাব বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চনপাড়ায় অভিযান চালায়, সেখান থেকেই শাহীনকে ‘আটক করে’ নিয়ে যায়।

“পরে তার গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পেয়ে প্রথমে আমরা ডেমরার ওইদিকে যাই। সেখান থেকে জানতে পারি, ঢাকা মেডিকেলে নিয়া গেছে। সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও যাই। সেখানে গিয়ে জানতে পারি, র‌্যাব লাশ নিয়ে আসছিল, আবার নিয়ে গেছে। আমরা এর বাইরে কোনো খবর পাইনি।”

পারভেজের দাবির বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আব্দুল্লাহ আল মোমেন শুক্রবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “এটা মিথ্যা; শাহীন চনপাড়াতেই গুলিবিদ্ধ হয়েছে।”

নিহত শাহীন মিয়া ওরফে সিটি শাহীন (৩৫) চনপাড়া পুনর্বাসন কেন্দ্রের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের প্রয়াত মজিবুর রহমানের ছেলে।

তিনি হত্যা, ডাকাতি ও মাদকসহ ২৩টি মামলার আসামি এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ‘তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী’ ছিলেন বলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক