বরিশালে ধর্ষণ মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন

ওই দুই আসামিকে যাবজ্জীবন সাজার পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় বলে আদালতের বেঞ্চ সহকারী জানান।

বরিশাল প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Jan 2024, 04:43 PM
Updated : 9 Jan 2024, 04:43 PM

বরিশাল সদরে ও উজিরপুর উপজেলায় আলাদা দুটি ধর্ষণ মামলায় দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. ইয়ারব হোসেন আসামিদের অনুপস্থিতে এ রায় ঘোষণা করেন বলে বেঞ্চ সহকারী মো. হুমায়ন কবির জানান।

দণ্ডিতরা হলেন- ভোলা সদর উপজেলার বেলুমিয়ার চর এলাকার বাসিন্দা মো. সোহাগ। তিনি বরিশাল নগরীর কেরানী বাড়ির পুল মাদ্রাসা সংলগ্ন এক বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

অপরজন উজিরপুর উপজেলার গুঠিয়া ইউনিয়নের বারই কান্দি এলাকার বাসিন্দা খলিল হাওলাদার।

মামলার বরাতে বেঞ্চ সহকারী হুমায়ন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “২০০৫ সালের ১ এপ্রিল উজিরপুরে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে এক শিশুকে ধর্ষণ করেন খলিল। এ ঘটনায় ওই বছরের ৯ এপ্রিল শিশুটির বাবা বাদী হয়ে খলিলকে আসামি করে থানায় মামলা করে।”

পরে ২০০৫ সালের ২০ জুন তৎকালীন উজিরপুর মডেল থানার এসআই মামুন অর রশিদ খলিলকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন বলে জানান তিনি।

সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামিকে যাবজ্জীবন সাজার পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় বলে জানান আদালতের বেঞ্চ সহকারী।

অপর মামলার বরাতে বেঞ্চ সহকারী হুমায়ন বলেন, “২০১৪ সালের ২৪ এপ্রিল বরিশাল নগরীতে বাড়া বাসায় এক কিশোরীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন সোহাগ। এতে ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়ে।”

খবর পেয়ে ওই কিশোরীর চাচা তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান।

পরে এ ঘটনায় একই বছরের ১ মে ওই কিশোরীর বাবা সোহাগকে আসামি করে সদর কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

ওই বছরের ২৭ জুলাই কোতোয়ালি মডেল থানার তৎকালীন এসআই আবু তাহের সোহাগকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন বলে জানান বেঞ্চ সহকারী।

সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামিকে যাবজ্জীবন সাজার পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় বলে বেঞ্চ সহকারী হুমায়ন জানান।