ছাগল চুরি ধরে ফেলায় ভোটকেন্দ্রে পাহারায় থাকা গ্রাম পুলিশকে হত‍্যা: পুলিশ

রণজিৎ ছাগল চোরদের চিনে ফেলায় থানায় ফোন করে পুলিশ ডাকতে চাইলে তিনজন তাকে শ্বাসরোধ করে হত‍্যা করে।

রাজবাড়ী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Feb 2024, 12:31 PM
Updated : 9 Feb 2024, 12:31 PM

ছাগল চুরি দেখে ফেলায় রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলায় ভোটকেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা গ্রাম পুলিশ রণজিৎ কুমার দেকে হত‍্যা করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।   

শুক্রবার সকালে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জিএম আবুল কালাম আজাদ এ কথা জানান। 

এর আগে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে এ হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।  

গ্রেপ্তার ২৮ বছর বয়সী মুক্তার শেখ ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার ঝাউকাঠি গ্রামের আজিদ শেখের ছেলে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

তবে তাকে কোথা থেকে এবং কীভাবে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানায়নি পুলিশ।    

বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের চর আড়কান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের পাহারার দায়িত্বে ছিলেন রণজিৎ। তার সঙ্গে ছিলেন ওই স্কুলের নাইটগার্ড ইউসুফ হোসেন। 

গত ৬ জানুয়ারি ভোটের আগের দিন সকালে ওই ভোটকেন্দ্রের পাশে মেহগনি বাগান থেকে রণজিৎ এর লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ। 

রণজিৎ কুমার দে (৪০) একই এলাকার শিবেন্দ্র দের ছেলে। এ ঘটনায় ৮ জানুয়ারি তার স্ত্রী রিতা দে বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা করলে তদন্তে নামে পুলিশ। 

ঘটনার বর্ণনায় পুলিশ সুপার আবুল কালাম বলেন, মুক্তারের শ্বশুরবাড়ি চর আড়কান্দি গ্রামে। সেখানে নিয়মিত যাতায়াতের কারণে ওই গ্রামের দুইজন ব্যক্তির সঙ্গে তার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারা একসঙ্গে মাদক সেবন করতো এবং তাদের একজনের ইজিবাইক রয়েছে। 

গত ৫ জানুয়ারি দিবাগত রাতে মুক্তারসহ তিনজন একসঙ্গে মাদক সেবনের পর চর আড়কান্দি গ্রামের দুটি বাড়ি থেকে দুটি ছাগল চুরি করে। কিন্তু তখন নির্বাচন ঘিরে পুলিশের টহল জোরদার থাকায় তারা আড়কান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে মেহগনি বাগানে অবস্থান নেয়। 

পরে রাত ৩টার দিকে রণজিৎ টয়লেট করতে ওই বাগানে গেলে ছাগল চোরদের চিনে ফেলে। সে থানায় ফোন করে পুলিশ ডাকতে চাইলে তিনজন গামছা দিয়ে রণজিৎকে শ্বাসরোধ করে হত‍্যা করে বলে জানান এসপি। 

আবুল কালাম বলেন, হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামি মুক্তারকে গ্রেপ্তারের পাশাপাশি হত্যার কাজে ব্যবহৃত ইজিবাইক ও চুরি হওয়া একটি ছাগল উদ্ধার করা হয়েছে। তবে আরেকটি ছাগল উদ্ধার করা যায় নাই। এ ঘটনায় বাকি দুই আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। 

সংবাদ সম্মেলনে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস্) মুকিত সরকার, বালিয়াকান্দি থানার ওসি আলমগীর হোসেন ও গোয়েন্দা পুলিশের ওসি মনিরুজ্জামান খানসহ অন‍্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন:

Also Read: রাজবাড়ীতে পাহারায় থাকা গ্রাম পুলিশের লাশ মিলল ভোটকেন্দ্রের পাশে