বগুড়ায় গুণীজন ও শিল্পী মহাসম্মেলনে সৃষ্টিশীলদের মিলনমেলা

আনুষ্ঠানিকভাবে সাড়ে ছয়শজন রেজিস্ট্রেশন করলেও হাজারের বেশি শিল্পী, গুণীজন এবং সুধীজনের আগমন ঘটেছে বলে মত আয়োজকদের।

বগুড়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Jan 2023, 11:47 AM
Updated : 21 Jan 2023, 11:47 AM

বগুড়ায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত তৃতীয় গুণীজন ও শিল্পী মহাসম্মেলন যেন সৃষ্টিশীলদের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে।

সব পর্যায়ের গুণীজন ও শিল্পী- যাদের শিল্পকর্মের ক্ষেত্র বৃহত্তর বগুড়ায় ছিল বা আছে, তাদের অতীত ও বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে সৌহার্দ ও ভ্রাতৃত্বের সেতুবন্ধন রচনার উদ্দেশ্যে দুই দিনব্যাপী এই মহাসম্মেলনের উদ্বোধন হয়েছে শুক্রবার।

অনুষ্ঠান উপলক্ষে বর্ণাঢ্য সাজে সাজানো হয়েছে অনুষ্ঠান স্থল। বসেছে শতাধিক স্টল। অনুষ্ঠানে এবং স্টলগুলোতে ছিল প্রচণ্ড ভীড়। স্মৃতিচারণ আর আড্ডায় মেতেছিলেন শিল্পী-গুণীজনরা।

সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে সাড়ে ছয়শজন রেজিস্ট্রেশন করলেও হাজারের বেশি শিল্পী, গুণীজন এবং সুধীজনের আগমন ঘটেছে বলে মত আয়োজকদের।

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট বগুড়ার সভাপতি তৌফিক হাসান ময়না জানান, এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে বগুড়ার অতীত ও বর্তমানকালের বরেণ্যজন, সঙ্গীত, নৃত্য, অভিনয়, আবৃত্তি, চিত্রকলা, সাহিত্য, সাংবাদিক, ক্রীড়া, গবেষক এবং সংশ্লিষ্ট কাজে সহযোগী ও সহকারীদের উপস্থিতিতে মিলনমেলাটি বর্ণিল হয়ে উঠেছে।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় শহরের শহীদ টিটু মিলনায়তনে মহাসম্মেলনটি আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে এবং বেলুন উড়িয়ে উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেসশনালস (বিইউপি) চেয়ার অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার নজরুল ইসলাম, বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু, দৈনিক করতোয়ার সম্পাদক মোজাম্মেল হক লালু, কৃষিবিদ মোস্তাফিজুর রহমান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট বগুড়ার সভাপতি তৌফিক হাসান ময়না ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সিদ্দিকীসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শহরের বিভিন্ন সড়কে প্রদক্ষিণ করে।  শোভাযাত্রায় কেউ রাজা, রাণী, বেদে, সাপুড়ে, পাহাড়ি আবার কেউ নববধূ সাজে নেচে, গেয়ে, ঘোড়ার গাড়ী, সজ্জিত হয়ে ব্যান্ডপার্টির তালে নেচে গেয়ে শহর মাতিয়ে তুলেছিলেন।

দেশের খ্যাতিমান কিশোরী ঘোড়সওয়ার তাসমিনা ঘোড়া নিয়ে আসায় অন্য মাত্রা যোগ হয়েছিল শোভাযাত্রায়।

অনুষ্ঠানে ৭০ দশকের জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী শওকত হায়াৎ খান তার অভিব্যাক্তি প্রকাশ করে জানালেন, “এক কথায় প্রাণের অনুষ্ঠান এবং মিলন মেলা। আমি অভিভূত এবং আপ্লুত। সাংস্কৃতিক জোটের এমন অনুষ্ঠান বার বার হোক। বগুড়ার মানুষ হিসেবে আমি এই কামনাই করি। ”

চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং বগুড়ার সন্তান আহসানুল হক মিনু জানালেন, “জোট এমন অনুষ্ঠান করে বলেই কাজের ফাঁকে বগুড়ায় আসার সুযোগ হয়।

“কেমন লাগছে বুঝাতে পারবো না, তবে মনে প্রাণে দোলা লেগেছে। মহাসম্মেলনের মাধ্যমে অনেকের সাথেও দেখা হওয়ার সুযোগ হয়েছে।”

উদ্বোধন এবং র‌্যালি শেষে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভার। বিকাল তিনটায় শুরু হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, নৃত্যানুষ্ঠান। চলেছে রাত ১০টা পর্যন্ত।

দ্বিতীয় দিন শনিবার বিকাল তিনটায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এছাড়াও স্বরচিত কবিতা পাঠ, নৃত্যানুষ্ঠান এবং গুণিজন ও শিল্পীদের সম্মাননা প্রদান করা হয়।

রাত ৭টায় ‘কীর্তনখোলা’ নাটক মঞ্চস্থ করার মধ্যদিয়ে সমাপ্তি টানা হবে দুই দিন ব্যাপী এ মিলনমেলার।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক