কক্সবাজারে অপহৃত অটোরিকশা চালক হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার

“টাকা না দিলে জাহেদকে কেটে টুকরো টুকরো করে লাশ পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে অপহরণকারীরা জানায়।”

কক্সবাজার প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 March 2024, 01:29 PM
Updated : 26 March 2024, 01:29 PM

কক্সবাজার শহরের কলাতলী থেকে চারদিন আগে অপহৃত এক সিএনজি চালিত অটোরিকশা চালককে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধারের কথা জানিয়েছে র‌্যাব। এ ঘটনায় আটক হয়েছেন একজন।

কক্সবাজার র‍্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন শামীম জানান, রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের উমখালীর গহীন পাহাড়ি এলাকা থেকে সোমবার গভীর রাতে ওই চালককে উদ্ধার করেন তারা।

উদ্ধার ২৫ বছর বয়সী জাহেদ হোসাইন উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের গায়ালামারা এলাকার ছিদ্দিক আহমদের ছেলে।

এ ঘটনায় আটক মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন ওরফে ইকবাল (২৮) রামুর উমখালী এলাকার আব্দুল হাকিমের ছেলে। র‌্যাব বলছে, তিনি অপহরণকারি চক্রের সদস্য।

অপহৃত চালকের বড় ভাই ছৈয়দ হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে এক নারী ও এক পুরুষ যাত্রী সেজে তার ভাই জাহেদের অটোরিকশা কলাতলী থেকে রামুর কলঘর বাজার যাবার জন্য ভাড়া করে। গাড়িটি লিংকরোড এলাকায় পৌঁছানোর পর জাহেদকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অপহরণ করা হয়। পরে জাহেদের ব্যবহৃত মোবাইল থেকেই পরিবারকে একাধিকবার ফোন করে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়।

সোমবার রাতের মধ্যে টাকা না দিলে জাহেদকে কেটে টুকরো টুকরো করে লাশ পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে সবশেষ অপহরণকারীরা জানায়। এ পরিস্থিতিতে তারা র‍্যাবের শরণাপন্ন হন। যোগ করেন ছৈয়দ।

কক্সবাজার র‍্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, “অপহরণের পর থেকেই তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে র‍্যাবের অভিযান শুরু করে।

এ সময় পাহাড়-অরণ্য বেষ্টিত এলাকায় অপহরণকারীদের অবস্থান চিহ্নিত করে কয়েক’শ গ্রামবাসীকে সঙ্গে নিয়ে অপহরণকারীদের আস্তানা ঘিরে ফেলা হয়।

“এক পর্যায়ে সোমবার রাতে র‌্যাবের উপস্থিত টের পেয়ে জাহেদকে রেখেই পালিয়ে যায অপহরণকারী চক্রের বেশিরভাগ সদস্য। পরে দুর্গম পাহাড়ি ঢাল থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় জাহেদকে উদ্ধারের পাশাপাশি অপহরণকারী ইকবালকে হাতেনাতে আটক করা হয়।”

এ ঘটনায় কক্সবাজার সদর থানায় মামলা হয়েছে এবং আটক ব্যক্তিকে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাবের এ কর্মকর্তা।