স্ত্রীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার পর ৯৯৯ ফোন

“স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তর্ক হয়। এ সময় দুইজনে হাতাহাতিতেও জড়িয়ে পড়েন।”

বরিশাল প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 11 Feb 2024, 11:51 AM
Updated : 11 Feb 2024, 11:51 AM

পারিবারিক কলহের জেরে বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় এক গৃহবধূকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।  

রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলার উদয়কাঠি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পিজিএস এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে বানারীপাড়া থানার এসআই শফিকুল ইসলাম জানান। 

নিহত বীথি সমাদ্দার (৩০) গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া উপজেলার নয়াকান্দি গ্রামের বাসুদের সমাদ্দারের মেয়ে। পাঁচ বছর আগে উপজেলার উদয়কাঠি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য সুধীর রায়ের ছেলে সুমন রায়ের (৩৩) সঙ্গে তার বিয়ে হয়। 

এই দম্পতির তিন বছর বয়সী সুক্তা রায় নামে এক কন্যাশিশু রয়েছে। সুমন অনলাইনে আউটসোর্সিংয়ের কাজ করতেন।  

সুধীর রায়ের সুপারি বাগান রয়েছে। এ ছাড়া তিনি কৃষিকাজ করতেন। তার স্ত্রী একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।  

৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. জাকির হোসেন বলেন, “খবর পেয়ে আমি সেখানে গিয়েছিলাম। পরিবারের সদস্যরা বলেছেন, সকালে ঘুম থেকে উঠে সুধীর রায় কাজে বের হন। তার শিক্ষিকা স্ত্রী স্কুলে চলে যান। বাসায় সুমন ঘুমিয়ে ছিল। 

“পরে প্রতিবেশীরা ঘরের মধ্যে চিৎকার শুনে এগিয়ে যায়। তারা যাওয়ার পর সুমন বলেছে, কাম হইয়া গেছে। কেউ ভেতরে আসবা না। পরে সে নিজে পুলিশে ফোন দিয়ে বিষয়টি জানিয়েছে। আমরাও জানিয়েছি। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাকে গ্রেপ্তার করেছে।”  

পরিবারের সদস্যদের বরাতে এসআই শফিকুল বলেন, “স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তর্ক হয়। এ সময় দুইজনে হাতাহাতিতেও জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে সুমন স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি হাতুড়িপেটা করেন। এতে বীথি রক্তাক্ত জখম হয়। 

“প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে বীথিকে প্রথমে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। পরে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল ৪টার দিকে তিনি মারা গেছেন।” 

বানারীপাড়া থানার ওসি মাইনুল ইসলাম বলেন, “দাম্পত্য কলহে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর স্বামী ৯৯৯ কল করে হত্যার কথা জানিয়ে আত্মসমর্পণ করার কথা বলেন। পুলিশ গিয়ে সুমনকে গ্রেপ্তার করেছে।” 

নিহতের ভাই এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান ওসি।