ফরিদপুরে ট্রেনের ধাক্কায় নসিমন দুমড়ে-মুচড়ে ৩ ঘণ্টা রেল চলাচল বন্ধ

কেউ হতাহত না হলেও নসিমনটিকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে ঠেলে নিয়ে যায় ট্রেনটি।

ফরিদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 March 2023, 07:12 AM
Updated : 30 March 2023, 07:12 AM

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে ট্রেনের ধাক্কায় দুমড়ে-মুচড়ে গেছে একটি নসিমন। এ সময় কেউ হতাহত না হলেও নসিমনটিকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে ঠেলে নিয়ে যায় ট্রেনটি। 

দুর্ঘটনার পর তিন ঘণ্টা রেল চলাচল বন্ধ থাকায় চরম ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা।

বুধবার রাত ৮টা ২০ মিনিটের দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের সৈয়দপুর বাজার রেলক্রসিংয়ে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান রেলস্টেশনের বুকিং ইনচার্জ মো. দেলোয়ার হোসেন। 

দুর্ঘটনায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন নসিমন চালকসহ দুই যাত্রী। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নামপরিচয় জানা যায়নি। 

স্থানীয় ও রেলস্টেশন সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বিকালে রাজশাহী থেকে গোবরাগামী টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস (গাড়ী নম্বর ৭৮৪) ট্রেনটি ছেড়ে আসে। রাত ৮টা ২০ মিনিটের দিকে ট্রেনটি সৈয়দপুর বাজার রেলক্রসিং পার হচ্ছিল।

এ সময় ট্রেনটি একটি নসিমনকে ধাক্কা দেয়। নসিমনটি দুমড়ে-মুচড়ে ট্রেনের নিচে আটকে যায়। ভেঙে যায় ট্রেনের সামনের বাম্পার। 

রাজশাহী থেকে ছাড়ার পরই গতি কম থাকায় ট্রেনটির নির্ধারিত টাইম ঠিক ছিল না বলে জানান ট্রেনযাত্রী ও নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা প্রকাশ কুমার বিশ্বাস। 

তিনি বলেন, বোয়ালমারী স্টেশন থেকে প্রায় চার থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে একটি নসিমন রেল ক্রসিং পার হওয়ার সময় ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে দুমড়েমুচড়ে যাওয়া নসিমনটিকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে ঠেলে নেওয়ার পর চালক টের পেয়ে ট্রেনটি থামান।

বোয়ালমারী রেলস্টেশন এলাকার বাসিন্দা মো. মিজানুর রহমান মিজান  বলেন, রেলের লাইনম্যান, স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় প্রায় তিনঘণ্টার চেষ্টা চালিয়ে দুর্ঘটনা কবলিত নসিমনটি সরানো হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। 

তিনি আরও বলেন, নসিমনে চালকসহ দুই যাত্রী থাকলেও তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নামপরিচয় বা খোঁজ পাওয়া যায়নি। 

বোয়ালমারী রেলস্টেশন এলাকার লাইনম্যান চাঁন মিয়া বলেন, নসিমনটি আটকে ট্রেনের ইঞ্জিনের বাম্পার ভেঙ্গে যায়। পরে ভারী লোহার বাম্পারটি খুলে ট্রেনের বগির সঙ্গে বেঁধে ট্রেনটি চালু করা হয়।

বোয়ালমারী রেলস্টেশনের বুকিং ইনচার্জ মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, তিন ঘণ্টা আটকে থাকার পর রাত ১১টা ১০ মিনিটের দিকে বোয়ালমারী স্টেশন থেকে ট্রেনটি গোবরার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। 

বোয়ালমারী থানার ওসি আব্দুল ওহাব মিঞা বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় রেলওয়ে থানার কোনো নির্দেশনা পাওয়া গেলে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।