যুবলীগ কর্মী হত্যা: চাঁদপুরের ইউপি চেয়ারম্যান মিজান ফের কারাগারে

আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে শুনানি শেষে বিচারক তা নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

চাঁদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Feb 2024, 03:05 AM
Updated : 18 Feb 2024, 03:05 AM

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে যুবলীগ কর্মী নিহতের মামলায় মোহনপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী মিজানুর রহমানকে আবার কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বুধবার দুপুরে মতলব উত্তরের আমলি আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে শুনানি শেষে বিচারক নাজমুল হাসান চৌধুরী তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে জানান বাদী পক্ষের আইনজীবী সেলিম মিয়া।

১৭ জুন বাহাদুরপুর গ্রামে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত হন যুবলীগ কর্মী মোবারক হোসেন (৪৮)। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আমির হোসেন কালু ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মিজানকে প্রধান আসামি করে ৩১ জনের নামে মতলব উত্তর থানায় মামলা করেন।

১৮ জুন কাজী মিজানকে গ্রেপ্তার করে ডিবি। এরপর তিনি প্রায় আড়াই মাস জেলে ছিলেন। নিম্ন আদালতে জামিন না পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যানসহ তিনজন ৩১ অগাস্ট হাইকোর্ট থেকে জামিন নেন।

ওইদিনই মামলার বাদী আমির হোসেন কালু সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে তিনজনের জামিন বাতিল চেয়ে আবেদন করেন। শুনানি শেষে ৫ সেপ্টেম্বর আপিল বিভাগের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের জামিনের ওপর আট সপ্তাহের স্থগিতাদেশ দেন।

কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান ৩ সেপ্টেম্বর চাঁদপুর কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান। ১২ সেপ্টেম্বর জামিন স্থগিতাদেশের কপি চাঁদপুরের মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে এসে পৌঁছায়। ওইদিনই ইউপি চেয়ারম্যানের আদালতে হাজির হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি হাজির না হওয়ায় আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে।

বুধবার ইউপি চেয়ারম্যান আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারক তা নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে জানান বাদী পক্ষের আইনজীবী। 

 [প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ০৪ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক]